Printed on Sun May 16 2021 11:35:46 PM

খুলনায় প্রতি সাত লাখ মানুষের জন্য আইসিইউ ১টি

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয়
আইসিইউ
আইসিইউ
সর্বশেষ আদমশুমারি অনুযায়ী খুলনাসহ বিভাগের ১০ জেলায় জনসংখ্যা ১ কোটি ৫৭ লাখ। আর এ বিভাগে আইসিইউ শয্যা রয়েছে ২৩টি। সে হিসেবে প্রতি ৬ লাখ ৮২ হাজার মানুষের বিপরীতে করোনা রোগীদের জন্য আইসিইউতে শয্যা সংখ্যা মাত্র একটি। একজন মারা না গেলে অথবা সুস্থ হয়ে চলে না গেলে অন্য রোগী পাচ্ছেন না শয্যা।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ডেডিকেটেট হাসপাতাল) ১০টি শয্যা, সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে আটটি, যশোর হাসপাতালে তিনটি ও মেহেরপুরে দুটি আইসিইউ শয্যা আছে।

শয্যা সংখ্যার চিত্র যতটা ভয়াবহ তার চেয়ে বেশি ভয়াবহ আইসিইউশয্যা পরিচালনার ক্ষেত্রে কার্যকরী ভূমিকায় থাকা অ্যানেসথেসিয়া চিকিৎসকদের। তিন জেলার সরকারি হাসপাতালে আইসিইউতে রয়েছেন মাত্র তিনজন অ্যানেসথেসিয়ান।

সরকারি স্বাস্থ্য কেন্দ্রের এই অবস্থার কারণে বেসরকারি চিকিৎসা কেন্দ্রগুলোতে অতিরিক্ত ব্যয় করে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে রোগীদের। যা রোগীর স্বজনদের জন্য দুশ্চিন্তার বড় কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে।

স্বাস্থ্য বিভাগের হিসাব অনুযায়ী, খুলনার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের নিচতলায় ১০টি শয্যা থাকলেও দ্বিতীয় তলায় তিন মাস আগে আরও ২০টি আইসিইউ শয্যা করা হয়। কিন্তু সেই ঘর এখন তালাবদ্ধ। ধুলোর আবরণ পড়েছে শয্যাগুলোতে। সারিবদ্ধভাবে শয্যা রাখাও হয়। কিন্তু নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেন, ভেন্টিলেশন সার্পোট আর হাই ফ্লু ন্যাজাল ক্যানোলের দেখা না পাওয়ায় দ্বিতীয় তলার আইসিইউ আর আলোর মুখ দেখেনি।

২০টি শয্যা যখন আর্বজনার স্তূপের মতো পড়ে আছে তখন ডেডিকেটেড হাসপাতালে প্রবেশ করতেই চোখে পড়ছে ‘সিট খালি নাই’ লেখাটি। ফলে আইসিইউ সেবা পেতে দূরদূরান্ত থেকে করোনা রোগীরা যতই এখানে আসুক না কেন তাদেরকে অপেক্ষা করতে হবে একজন রোগীর মৃত্যু অথবা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার।

করোনা প্রতিরোধ ও চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা কমিটি, খুলনার সমন্বয়কারী ডা. মেহেদী নেওয়াজ বলেন, যে রোগী বেডে উঠেছে তাকে তো আর নামিয়ে দেয়া যাবে না। যতক্ষণ পর্যন্ত না সে ভালো হচ্ছে অথবা মারা যাচ্ছে। এই সময় পর্যন্ত অন্য রোগীদের বিছানার জন্য অপেক্ষা করতেই হবে।

বিএমএ খুলনার সভাপতি ডা. শেখ বাহারুল আলম বলেন, করোনায় আক্রান্ত মুমূর্ষু রোগীরা আইসিইউর সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন পরিকল্পনা ও নীতি নির্ধারকদের সিদ্ধান্তহীনতায় কারণে। দেড় কোটি মানুষের জন্য মাত্র ২৩টি আইসিইউ শয্যা, এটা মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলার মতোই।

করোনা পরিস্থিতি এবং আইসিইউ সংকট নিয়ে খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. রাশেদা সুলতানা বলেন, করোনায় এ পর্যন্ত খুলনা বিভাগে ৫২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত বিভাগে ২৩টি আইসিইউ আছে। যা দ্রুতই বৃদ্ধি পাচ্ছে। খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও নড়াইলে আইসিউ সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। বাগেরহাট সদর হাসপাতালেও আইসিইউ স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে।

আরও পড়ুন: রংপুরের দেড় কোটি মানুষের জন্য আইসিইউ ২৬টি

আরও পড়ুন: দেশের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতালে রোগী ভর্তি শুরু

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/42293
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ