Printed on Fri Sep 17 2021 1:58:54 AM

আফগানিস্তানে বোরকা কেনার হিড়িক

অনলাইন ডেস্ক
বিশ্বভিডিও সংবাদ
বোরকা
বোরকা
গেল বছরে কাবুলে আয়োজন করা হয়েছিল ফ্যাশন শো। যাকে অনেকেই বলেছিলেন 'প্রথা ভাঙ্গার ফ্যাশন শো' এতে পায়ের সঙ্গে পা মিলিয়েছিলেন নারী-পুরুষ উভয়েই। কিন্তু তালেবানরা কাবুল দখল করে নেয়ার পর সেটি এখন ইতিহাস। তালেবানরা ঘোষণা করেছে কঠোর শরিয়া আইন।

রাস্তায় থাকা নারীদের ছবি সরিয়ে ফেলা হয়েছে, খুলে ফেলা হয়েছে বড় বড় শহরগুলোতে থাকা নারীর ছবি সম্বলিত বিলবোর্ড। দেয়ালে সাঁটানো ছবিও মুছে ফেলছেন অনেকেই নিজ দায়িত্বেই। তাতে বুঝা যায় পশ্চিমা সংস্কৃতি যতটা বিস্তার করেছিল গত ২০ বছরে তা এক মুহূর্তেই উবে গেছে আফগানিস্তান থেকে।

তালেবান যোদ্ধাদের রক্তপাতহীন কাবুল বিজয়ের পরপরই আফগান জুড়ে দেখা গেছে নারীদের বোরকা কেনার হিড়িক। যতটা না ধর্মীয় কারণে তার চেয়ে বেশি রক্ষণশীল তালেবান গোষ্ঠীর আক্রোশের ভয়েই আফগান নারীরা বোরকা কিনতে স্থানীয় বিপণীকেন্দ্র গুলোতে ভিড় করছেন। ঠিক যে সময়ে আফগান যোদ্ধারা কাবুল বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে সে সময় থেকেই মূলত এমনটি দেখা গেছে বলে জানা গেছে।

তালেবানদের অগ্রযাত্রার শুরুতে তারা আফগান জুড়ে কঠোর শরিয়া আইন জারির হুঁশিয়ারি দিলে দেশটির তরুণী থেকে বৃদ্ধা সবাই নিজেদের বোরকার মজুদ বাড়ানো শুরু করেছে। মূলত তালেবানরা দেশটির রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলের পর থেকে সেখানকার নারীরাও তৈরি হচ্ছেন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য। যার অংশ হিসেবে বোরকা কেনার হিড়িক পড়ে।

কাবুলসহ দেশটির বেশিরভাগ অঞ্চলের বোরকা কেনাবেচার দোকানগুলোতে তরুণী থেকে বৃদ্ধা সকল বয়সী নারীদের ভিড় বেড়েছে। কাবুলের একটি দোকানের হুকে ঝুলানো অসংখ্য পর্দা টানানো দেখা যায় দূর থেকে। কিন্তু কাছে গিয়ে দেখা যায় আসলে সেগুলো নীল রঙয়ের বোরকা।

এদিকে সুযোগ বুঝে ক্রেতারাও বাড়িয়ে দিয়েছেন বোরখার দাম। গত বছরও যে বোরখার দাম ছিলো আফগানি মুদ্রায় ২শ টাকা কিন্তু এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার থেকে ৩ হাজার টাকা। আগে বিভিন্ন প্রদেশের নারীরাই প্রধান ক্রেতা ছিলেন কিন্তু তালেবানদের অগ্রযাত্রার এখন শহরাঞ্চলের নারীরাও ব্যাপকহারে বোরকা কিনছেন বলে বিক্রেতারা জানিয়েছেন।

বিগত কয়েক দশক ধরে ঐতিহ্যবাহী নীল রঙের আফগানি বোরকা বিশ্বে আফগান নারীদের পরিচয় বহন করে আসছে। ভারী কাপড়ে বানানো এই বোরকাগুলো এমনভাবে নকশা করা হয় যেন পরিধানকারীর পা থেকে মাথা পর্যন্ত ঢাকা থাকে। বোরকাগুলোর চোখের কাছে থাকে পাতলা জালের মতো কাপড়,যা দিয়ে পরিধানকারীরা বাইরের দৃশ্য দেখতে পান, কিন্তু বাইরের কেউ পরিধানকারীকে দেখতে পাবেন না।

এর আগে ৯০-এর দশকে তালেবান সরকার ক্ষমতায় আসলে কড়াকড়ি ভাবে এ ধরনের বোরকা পরে মেয়েদের বাইরে বের হওয়ার নির্দেশনা জারি করা হয়। কেউ এই নির্দেশ না মানলে তালেবানের নৈতিক পুলিশের হাতে জনসম্মুখে বেত্রাঘাতের মতো নির্মম শাস্তি পেতে হতো। পরে ২০০১ সালে তালেবান সরকারের পতনের পর ধর্মীয় ও ঐতিহ্যগত কারণে অনেকেই বোরকা পরা অব্যাহত রাখলেও অনেকেই তা প্রত্যাখ্যান করেছিল।

ভয়েস টিভি/এসএন
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/51289
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ