Printed on Fri Sep 17 2021 12:21:01 AM

গিরগিটি কেন রং বদলায়

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয়ভিডিও সংবাদ
গিরগিটি
গিরগিটি
গিরগিটি কি আসলেই রং বদলায়, নাকি কোন রকেট সাইন্স আছে এর পিছনে! গিরগিটি যেমন করে হুটহাট করে রং বদলায় তার থেকে মানুষ বেশি রং বদলায়। মানুষ কিভাবে এই অসাধ্য সাধন করে তা জানা না গেলেও গিরগিটির ব্যাপারে জানা সম্ভব হয়েছে।

স্কুইড এবং অক্টোপাসের মতো গিরগিটি চামড়ার রং বদলে ফেলে না। তবে গবেষণায় দেখা গেছে যে, গিরগিটি এই কাজটা তার শরীরের কোষের কাঠামোগত পরিবর্তন ঘটিয়ে করে থাকে।

গিরগিটি তার চামড়ার গঠনের পরিবর্তন ঘটিয়ে ভিন্ন ভিন্ন রঙের প্রতিফলন ঘটায়। বিজ্ঞানীরা ৫ টি পুরুষ, ৪ টি মহিলা, ৪ টি তরূণ গিরগিটির ওপর গবেষণা করে পেয়েছেন, তাদের চামড়ায় ২ ধরনের ইরিডোফোর কোষ থাকে। এই কোষে বিভিন্ন সাইজের ন্যানো স্ফটিক থাকে, যা মুলত এই রং পরিবর্তনের জন্য দায়ী। গিরগিটি তার শরীরের চামড়া উত্তেজিত বা শান্ত করে তার কোষের গঠনগত পরিবর্তন করে থাকে। যা এই রং পরিবর্তনের কারণ।

কোষগুলো শান্ত থাকলে সেগুলো কাছাকাছি থাকে। আর তখন ছোট তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের রশ্মি প্রতিফলিত হয়, যা নীল রঙের দেখায়। আর যখন উত্তেজিত থাকে তখন কোষগুলোর দূরত্ব বেড়ে যায়। এতে দীর্ঘ তরঙ্গের রশ্মি যেমন লাল, কমলা, হলুদ দেখায়।

মজার ব্যাপার হলো শুধু রং না এরা রঙের ব্রাইটনেস বদলাতে পারে। সাধারণত, পুরুষ গিরগিটি অন্য পুরুষ গিরগিটিদের তাড়াতে বা মেয়ে গিরগিটিদের আকৃষ্ট করতে রং বদলায়।

টেক্সাসের ‘পিগমি শর্ট-হর্নড লিজার্ড' বা বামন একশৃঙ্গ গিরগিটির একটি বিশেষ ক্ষমতা রয়েছে। পিপাসা পেলে সরাসরি পানি পান করার প্রয়োজন নেই – সরাসরি ত্বকের মাধ্যমেই তরল পদার্থ গ্রহণ করতে পারে এই প্রাণী৷ ত্বকের অতি ক্ষুদ্র ছিদ্রের মাধ্যমে ভিজে বালুর মতো উৎস থেকে সে পানি শুষে নেয়৷ সূক্ষ্ম নালীর মাধ্যমে সেই তরল মুখে চলে আসে।

আখেন শহরের আরডাব্লিউটিএইচ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা গিরগিটির ত্বকের এই নালী পরীক্ষা করে প্লাস্টিক ও ধাতুর সারফেসের উপর তা সফলভাবে অনুকরণ করতে পেরেছেন৷ সারফেসের অত্যাধুনিক কাঠামো এমনকি মাধ্যাকর্ষণ শক্তির পরোয়া না করেও পরোক্ষভাবে নির্দিষ্ট একটি দিশায় তরল পাঠাতে পারে৷ এর জন্য কোনো শক্তিরও প্রয়োজন পড়ে না।

গিরগিটির আঁশের কাঠামো নকল করতে গবেষকরা এমন এক সফটওয়্যার তৈরি করেছেন, যা জৈব কাঠামো হুবহু বুঝে নিয়ে লেজার রশ্মির মাধ্যমে কৃত্রিম সারফেসের উপর প্রয়োগ করতে পারে৷ গিরগিটির এই গুণ সম্ভবত কয়েক বছরের মধ্যে ইঞ্জিনের লুব্রিকেশন, কাচের উপর কন্ডেনসেশন পানি সরানো অথবা রেফ্রিজারেটরের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা সম্ভব হবে।

সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা একটি নরম দেহের রোবট তৈরি করেছেন যেটি গিরগিটির মতোই রঙ পরিবর্তন করতে পারে। রোবটের রঙ পরিবর্তনকারী চামড়া তৈরির জন্য, গবেষকরা "থার্মোক্রোমিক লিকুইড ক্রিস্টাল কালি" ব্যবহার করেছেন যা "সিলভার ন্যানোয়ার হিটার" এর সংমিশ্রণে তাপমাত্রার সাথে রঙ পরিবর্তন করে।

রোবটের নীচে রঙের সেন্সর রয়েছে। এটি যখন যে পৃষ্ঠ অতিক্রম করে সেই রং ধারণ করতে পারে।
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/51551
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ