Printed on Sun Feb 28 2021 7:29:35 PM

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলেন যাঁরা

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন
চলচ্চিত্র পুরস্কার
চলচ্চিত্র পুরস্কার
শিল্পীদের সেরা কাজের স্বীকৃতি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। তবে এবার অপুর্ণতা ছিল শিল্পীদের কণ্ঠে। প্রতি বছর প্রধানমন্ত্রী তার নিজ হাতে শিল্পীদের হাতে পুরুস্কার তুলে দেন কিন্তু এবার করোনার কারণে সেই ধারাবাহিকতায় প্রভাব পড়েছে।  এবার পুরোনোদের সাথে পাল্লা দিয়ে নবাগতরাও দেখিয়েছে প্রতিভা।

কে হবেন ২০১৯ সালের সেরা নায়ক-নায়িকা? সেরা পরিচালক হিসেবে কার হাতে উঠবে স্বীকৃতি? সেরা ছবির স্বীকৃতিটাই বা কোন ছবির ভাগ্যে জুটবে? সব প্রশ্নের উত্তর মিললো অবশেষে।

২০১৯ সালের জন্য মোট ২৬টি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। তার মধ্যে সেরা ছবি হিসেবে দ্বৈতভাবে পুরস্কার ঘরে তুলেছে ‘ন ডরাই‘ ও ‘ফাগুন হাওয়ায়’ সিনেমা। ‘ন ডরাই’ সিনেমার জন্যে সেরা পরিচালক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলেন তানিম রহমান অংশু।

সেরা অভিনেতা হিসেবে ‘আবার বসন্ত’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য পুরস্কার পেলেন বরেণ্য অভিনেতা তারিক আনাম খান। সেরা অভিনেত্রী হিসেবে পুরস্কার জিতে নিলেন ‘ন ডরাই’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য সুনেরাহ বিনতে কামাল।

পার্শ্ব চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে ফজলুর রহমান বাবুর হাতে উঠেছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। তিনি পুরস্কার পাচ্ছেন তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘ফাগুন হাওয়ায়’ অভিনয় করার জন্য। পার্শ্ব চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী নারগিস আকতার ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’ ছবির জন্য পুরস্কার জিতে নেন। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মতো খল চরিত্রে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছেন নন্দিত অভিনেতা জাহিদ হাসান। তিনি ‘সাপলুডু’ সিনেমায় খল চরিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ খল অভিনেতার পুরস্কার পান।

এবারে সেরা সংগীত পরিচালক হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন ইমন চৌধুরী, সেরা গায়ক হিসেবে পুরস্কার জিতেন মৃণাল কান্তি দাস, সেরা গায়িকা হিসেবে যৌথভাবে জয়ী হয়েছেন মমতাজ বেগম ও ফাতিমা তুয যাহরা ঐশী।

শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী হিসেবে যৌথভাবে আফরীন আক্তার ও নাইমুর রহমান, সেরা সুরকার হিসেবে তানভীর তারেক ও প্লাবন কোরেশী, সেরা গীতিকার হিসেবে কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী ও নির্মলেন্দু গুণকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : আইসিসির দশক সেরা একাদশে সাকিব

চলচ্চিত্রে বিশেষ অবদানের জন্য কয়েক বছর ধরে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা দেয়া হচ্ছে। প্রতি বছরই দুজনকে এই সম্মান জানানো হয়। সেই ধারাবাহিকতায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৯ এ দুজন নন্দিত ব্যক্তিকে দেয়া হয়েছে এ পুরস্কার। এবার আজীবন সম্মাননা পেলেন অভিনেতা-প্রযোজক ও পরিচালক মাসুদ পারভেজ সোহেল রানা। তার সঙ্গে সম্মাননা দেয়া হয়েছে অভিনেত্রী-প্রযোজক ও পরিচালক কোহিনুর আক্তার সুচন্দাকে।

চলচ্চিত্র শিল্পী ও কলাকুশলীদের পাশে সব সময় আছেন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষকে সিনেমা হলমুখী করে তুলতে পরিবার-পরিজন নিয়ে দেখা যায় এমন চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে হবে। শিশুদের উপযোগী করে চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে হবে। আধুনিক ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভালো সিনেমা নির্মাণের ব্যাপারে সরকার সর্বাত্মক সহায়তা করবে সরকার।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, চলচ্চিত্র শুধু শিল্পী ও কলাকুশলীদের জন্যই নয়, দেশের মানুষের ভাগ্যেন্নয়নের ক্ষেত্রেও অবদান রাখতে পারে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশের মানুষকে আরও উদ্বুদ্ধ করার পাশাপাশি প্রজন্মের পর প্রজন্ম যেন বিজয়ের ইতিহাস জানতে পারে সেদিকে লক্ষ্য রেখে চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে হবে।চলচ্চিত্র নির্মাণে তরুণ সমাজের এগিয়ে আসাকে ভালো লক্ষণ মন্তব্য করে সরকার প্রধান বলেন, তরুণ সমাজ বেশ এগিয়ে এসেছে। এটা আমাদের জন্য সত্যি খুব আনন্দের বিষয়।

সবশেষে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পুরস্কারপ্রাপ্তদের মধ্যে সনদ ও সম্মাননা তুলে দেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

ভযেস টিভি/বিডিআর/ডিএইচ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/32350
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ