Printed on Fri Aug 06 2021 3:16:45 AM

প্রয়োজনে পরীমণিকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয়
জিজ্ঞাসাবাদ
জিজ্ঞাসাবাদ
ঢাকা বোট ক্লাবে ঘটনার আগের রাতে রাজধানীর গুলশান অল কমিউনিটি ক্লাবে চিত্রনায়িকা পরীমণি ভাঙচুর করেন। মদ চেয়ে না পেয়ে তিনি তার সহযোগীদের নিয়ে ১৫টি গ্লাস, ৯টি অ্যাশট্রে এবং বেশ কিছু প্লেট ভাঙচুর করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বিষটি নিয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) জানিয়েছে, পরীমণির ভাঙচুরের ঘটনায় সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

১৭ জুন বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার এ কথা জানান।

তিনি বলেন, কমিউনিটি ক্লাবের ঘটনাটি আমাদের গুলশান টিমের এলাকায়। আমরা বিষয়টি নিয়ে অবশ্যই আলোচনা করবো। এ বিষয়ে যেকোনো ধরনের অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমরা জেনেছি ৮ জুন গভীর রাতে পরীমণি ওই ক্লাবে গিয়েছেন, ৯৯৯ নম্বরে একটি ফোনে ওখানকার ঘটনাটি জানতে পারে পুলিশ। তবে, পরবর্তীতে এটা নিয়ে কোনো সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আমরা এটা নিয়ে কাজ করব।

বোট ক্লাবের ঘটনায় পরীমণির অভিযোগ নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে পরীমণিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, একটি মামলা হয়েছে ঢাকা জেলাতে। যেহেতু মামলাগুলো চলমান, পরীমণি অবশ্যই প্রয়োজনে সব বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আওতায় আসবে। জিজ্ঞাসাবাদ করে তদন্ত শেষে বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলা যাবে।

অল কমিউনিটি ক্লাবের প্রেসিডেন্ট কেএম আলমগীর ইকবাল দাবি করেন, ক্লাবে ঢুকে পরীমণি ও তার সহযোগীরা ভাঙচুর চালিয়েছে। তবে ভাঙচুরের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পরীমণি।

আলমগীর ইকবাল বলেন, প্রতিটি ক্লাবের একটি ড্রেস কোড থাকে। কোনো পুরুষ যদি আসেন, তখন তাকে কিছু ড্রেস কোড মেইনটেইন করতে হয়। তবে ওই রাতে পরীমণির সঙ্গে যে পুরুষ ব্যক্তি এসেছিলেন তিনি হাফপ্যান্ট, স্যান্ডেল এবং টি-শার্ট পরিহিত ছিলেন। তাকে বলা হয়েছিল আপনি ড্রেস কোড লঙ্ঘন করেছেন। এভাবে ভিতরে যাওয়া যাবে না। কিন্তু তারা কোনো কথাই শুনতে চাচ্ছিলেন না। রাত তখন বেশি হয়ে যাওয়ায় লোকজনও ছিল কম। ক্লাবের দুজন সদস্য তখন ছিলেন। পরীমণি ক্লাবের সদস্য নন। এর পরও অনেকটা জোর করেই ক্লাবে ঢুকতে চান। একজন সদস্যের রেফারেন্স নিয়ে প্রবেশের চেষ্টা করেন। ওই সদস্য তখন ছিলেন না।

এ সময় পরীমণি তার পরিচিত ওই সদস্যের সঙ্গে ফোনে কথাও বলেন। সদস্য তাকে ফিরে চলে যাওয়ার অনুরোধ করে ফোন রেখে দেন। এরপরও পরীমণি মদ চাওয়ার পর না পেয়ে উত্তেজিত হয়ে ক্লাবের আসবাবপত্র ভাঙচুর করেন।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/47034
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ