Printed on Wed Oct 20 2021 7:31:51 AM

তালেবানের প্রতি উদার চীন!

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিশ্বভিডিও সংবাদ
তালেবানের প্রতি উদার চীন!
তালেবানের প্রতি উদার চীন!
১৯৯৬ সালে তালেবান যখন প্রথমবার আফগানিস্তান দখল করে, তখন তাদের স্বীকৃতি দিতে রাজি হয়নি চীন। এমনকি নিজেদের দূতাবাস বহু বছর বন্ধ রেখেছিল তারা। তবে এবার তালেবান কাবুলের মসনদ দখলে নেয়ার মুহূর্তে সম্পূর্ণ ভিন্ন রূপে হাজির চীনারা। সশস্ত্র গোষ্ঠীটির প্রতি ইদানীং অভাবনীয় উদারতা দেখাচ্ছে বেইজিং।

চীনাদের এই পরিবর্তন দৃশ্যমান হতে শুরু করেছিল সপ্তাহ দুয়েক আগে। ওই সময় চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই নিজে তিয়ানজিন শহরে তালেবানের একদল প্রতিনিধিকে স্বাগত জানাতে হাজির হয়েছিলেন।

আফগানিস্তানে একের পর এক শহর দখলে নেওয়ার সময়ই চীন সফরে গিয়েছিলেন তালেবানের শীর্ষ নেতারা। তাদের হতাশ করেনি বেইজিং। আফগানিস্তান শাসনে তালেবান ‘গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা’ রাখবে মন্তব্য করে সশস্ত্র গোষ্ঠীর বৈধতাপ্রাপ্তির আশায় জোর হাওয়া লাগান চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তালেবান যোদ্ধারা কাবুলে প্রবেশ করাকে ১৯৪৯ সালে মাও সে তুংয়ের বেইজিং দখলের ঘটনার সঙ্গে তুলনা করে প্রচারণা চলেছে চীনের কঠোর নিয়ন্ত্রিত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এছাড়া তালেবান যখন ধীরে ধীরে কাবুলের দিকে অগ্রসর হচ্ছিল, তখন চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা শিনহুয়া এটিকে ‘মার্কিন আধিপত্য হারানোর ঘণ্টাধ্বনি’ উল্লেখ করে সংবাদ প্রচার করে। এসবই চীনের সুদীর্ঘ বিবর্তনের অংশ। অথচ ২০১৩ সালের আগে তারা তালেবানের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতেও অস্বীকৃতি জানাত।

এই পরিবর্তনের পেছনে চীনের বৈশ্বিক শক্তি হয়ে ওঠার স্বপ্ন বড় ভূমিকা রেখেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও চীনকে আফগানিস্তানে বন্ধুসুলভ শাসকগোষ্ঠী তৈরিতে প্ররোচিত করেছে।

এদিকে, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠকে তালেবান নেতা মোল্লা আব্দুল গানি বারাদার আশ্বস্ত করেছেন, তারা আফগান ভূমি ব্যবহার করে কোনও শক্তিকে চীনবিরোধী কর্মকাণ্ড চালাতে দেবেন না।

আরও পড়ুন : আজ ডিম দিবস

ভয়েস টিভি/ এএন
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/52156
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ