Printed on Sat Jul 31 2021 5:22:28 AM

পেনাল্টি মিস, পোল্যান্ডের সঙ্গেও জিততে পারেনি স্পেন

স্পোর্টস ডেস্ক
খেলার খবর
পেনাল্টি
পেনাল্টি
ম্যাচে বল দখল বা আক্রমণ, সবকিছুতেই পোল্যান্ডের থেকে পরিষ্কার ব্যবধানে এগিয়ে ছিল স্পেন। কিন্তু গোল তো মিস করলোই, পেনাল্টিও কাজে লাগাতে না পেরে জয়বঞ্চিত হলো লুইস এনরিকের দল।

সেভিয়ার লা কোর্তুয়ায় শনিবার রাতে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে পোল্যান্ড-স্পেনের ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্রয়ে শেষ হয়েছে।

লুইস এনরিকের মূল একাদশে ফেরা এই ফরোয়ার্ড পেনাল্টি থেকে গোল করতে পারেননি। তাঁর শট গোলপোস্টে লেগে ফিরতি বল পেয়ে জালে পাঠাতে পারেননি মোরাতাও।

ওদিকে পিছিয়ে পড়ার পর গোল করে পোল্যান্ডকে ঠিকই সমতায় ফিরিয়েছেন স্ট্রাইকার রবার্ট লেভানডফস্কি। দুই ম্যাচেই জয়বঞ্চিত থেকে দুটি ড্র নিয়ে 'ই' গ্রুপে টেবিলের তিনে নেমে গেল স্পেন।

২ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ২ পয়েন্ট। ২ ম্যাচে ১ পয়েন্ট নিয়ে এই গ্রুপের তলানিতে পোল্যান্ড। স্লোভাকিয়ার সঙ্গে প্রথম ম্যাচে ২-১ গোলে হারে তারা। সুইডেন ২ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে। তাদের সমান ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে তিনে স্লোভাকিয়া।

সুইডেনের বিপক্ষে গোলের সুযোগ নষ্ট করে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন মোরাতা। তবু তাকে মূল একাদশে রেখে ৪-৩-৩ ছকে দল সাজিয়ে মূল একাদশে মোরেনোকে ফেরান স্পেন কোচ এনরিকে।

২৫ মিনিটে মোরাতা-মোরেনো রসায়নে গোল পায় স্পেন। বক্সের ডান প্রান্ত থেকে জটলার মধ্যেই মোরেনোর নিখুঁত পাসে আলতো টোকায় গোল করেন মোরাতা। তখন মনে হয়েছিল, মোরাতা বুঝি সুইডেন ম্যাচের শাপমোচন করলেন! কিন্তু নাটকের তখনো বাকি ছিল।

অফসাইড সন্দেহে মাঠের রেফারি শুরুতে স্পেনকে গোল দেননি। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর) প্রযুক্তি পরে গোলটি বৈধ ঘোষণা করে। প্রথমার্ধে ১-০ গোলে এগিয়ে ছিল স্পেন। গোলের সুযোগও বেশি পেয়েছে তারা।

৩৮১টি পাস খেলে নেওয়া ৬টি শটের মধ্যে মাত্র ২টি পোল্যান্ডের গোলপোস্টে রাখতে পেরেছে এনরিকের দল। এ সময় তারা ৭৮ শতাংশ সময় বল দখলে রাখতে পেরেছে।

লেভানডফস্কিকে নিয়ে গড়া পোলিশ আক্রমণভাগ প্রথমার্ধে স্পেনের গোলপোস্ট তাক করে একটি শট নিতে পেরেছে।

বিরতির পর আরও একটি রাখতে পেরেছে আর এখান থেকেই এসেছে সমতাসূচক গোল। ৫৪ মিনিটে কামিল জোজউইয়াকের ক্রস থেকে হেডে গোল করেন লেভা। ১-১ গোলে সমতায় ফেরে পোল্যান্ড।

এর চার মিনিট পরই ভিএআর প্রযুক্তির সিদ্ধান্তে পেনাল্টি পায় স্পেন। মোরেনোকে ফেলে দিয়েছিলেন পোলিশ মিডফিল্ডার জ্যাকুব মোদের।

মোরেনোর শট বাঁ পোস্টে লেগে লক্ষ্যভ্রষ্ঠ হয়ে ফিরে আসে আর এই ফিরতি বলে গোলকিপারকে এক কোণে পেয়েও বল উড়িয়ে মারেন মোরাতা। অবিশ্বাস্য!

পোল্যান্ডের বিপক্ষে পাসের পর পাস খেলেনি স্পেন। সরাসরি ফুটবলই বেশি খেলেছে। এমনকি দুরপাল্লার পাসে পোলিশ ডিফেন্ডারদের বেকায়দায়ও ফেলার চেষ্টা করেছেন পেদ্রি-কোকেদের মাঝমাঠ। ৬১ মিনিটে দানি ওলমোকে তুলে ফেরান তোরেসকে মাঠে নামিয়েও গোল আদায় করতে পারেননি এনরিকে।

শেষ দিকে কয়েকবার জটলার মধ্য থেকে গোলের সুযোগ পেয়েছে স্পেন। খুব কাছ থেকে ফেরান তোরেস ও মোরাতার গোলের চেষ্টা রুখে দেন পোলিশ গোলকিপার ভয়চেখ সেজনি। শেষ দিকে দুটি গুরুত্বপূর্ণ সেভ করেন তিনি।

দুই অর্ধ মিলিয়ে মোট ৭৬ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে, গোলপোস্টে ৫টি শট নিয়েও স্পেনের এই জয়বঞ্চিত থাকা ভাবাবে কোচ এনরিকেকে।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/47219
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ