Printed on Wed May 05 2021 8:56:20 PM

প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিকের কাজ করে যেসব ভেষজ

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল
প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিকের
প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিকের
শরীরের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করতে অ্যান্টিবায়োটিকের ওপর নির্ভর করতে হয়। তবে এতে সংক্রমণ কমলেও, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। তাই প্রাকৃতিক উপায়ে যদি এই ধরনের ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলা যায়, তবে তা শরীরে স্বাস্থ্যকর প্রভাব ফেলে। আয়ুর্বেদ মতে, বেশ কিছু ভেষজ রয়েছে, যেগুলি সারাবছর খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। আবার এমন অনেক ভেষজ আছে যেগুলো নানা রোগ নিরাময়ে কাজ করে। যেমন-

জ্বর-সর্দি-কাশি নিরাময়ে

তুলসী পাতা : তুলসী পাতায় উপস্থিত বিশেষ ধরনের অ্যালকালয়েড বা উপক্ষার জ্বর, সর্দি নিরাময়ে দারুণ কাজ দেয়।

বাসকপাতা : শুকনো কাশি কমাতে, জমে থাকা কফ বের করতে, কাশির সঙ্গে রক্তপাত হলে তা নিরাময়ে বাসকপাতার রস বা পাতা ফোটানো পানি খুবই উপকারী। লিভারের জন্যও এই পাতা বেশ কার্যকর ভূমিকা পালন করে।

দারুচিনি : শুধু করোনা নয়, যে কোনও রোগজীবাণু প্রতিরোধ করতে দারুচিনি বেশ উপকারী। এতে সরাসরি জীবাণু ধ্বংস করার ক্ষমতা রয়েছে। শ্বাসযন্ত্রের যে কোনও ধরনের সংক্রমণ নিরাময়েও দারুচিনি কার্যকর।

লবঙ্গ : গলাব্যথা বা গলায় ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ হলে লবঙ্গ তা প্রতিরোধ করে। গলাব্যথা, টনসিল বা ফ্যারিনজাইটিস, ল্যারিনজাইটিসের সমস্যায় লবঙ্গ কার্যকর ভূমিকা রাখে। এটি দাঁত ও মাড়ির সংক্রমণ কমায়।

গোলমরিচ: যে কোনও ব্যাকটেরিয়াল সংক্রমণ কমাতে গোলমরিচ উপকারী।

পেট ভাল রাখতে

কালমেঘ : কালমেঘ পাতা লিভারের জন্য ভালো। এটি পেটের যে কোনও সংক্রমণ কমাতেও কার্যকর।

থানকুনি পাতা : আমাশয়সহ পেটের নানা সমস্যা দূর করতে থানকুনি পাতা ভালো কাজ করে। রোজ ১০টি করে থানকুনি পাতা চিবিয়ে খেলে উপকারিতা পাওয়া যাবে। শিশুদের ক্ষেত্রে থেঁতলে হাফ চামচ করে এই পাতার রস খাওয়াতে পারেন।

হরিতকী : পেটের মধ্যে জমে থাকা বায়ু বের করে দিতে সাহায্য করে হরিতকী। পেট ফাঁপা কমাতে এটি বেশ কার্যকর। হরিতকী কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়। সেই সঙ্গে পেটের নানা রকম জীবাণু ধ্বংস করে। এটি হজমশক্তি ঠিক রাখে ও শরীরের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। গরম পানিতে হরিতকী গুঁড়ো দিয়ে রাতে ঘুমানোর আগে খেতে পারেন।

আদা : আদা খেলে শরীর গরম থাকে। ফলে শরীরে জীবাণু বিস্তারলাভ করতে পারে না। নিয়মিত আদা খেলে শরীরের বিপাকক্ষমতা বাড়ে।

আনারস পাতা : এই পাতার নিচের দিকের সাদা অংশ রস করে খেলে পেটের কৃমি বা প্যারাসাইটকে ধ্বংস করে।

সব ধরনের সংক্রমণ রোধে

হলুদ : এতে থাকা অ্যান্টিফাংগাল ও অ্যান্টিপ্যারাসাইটিক 'কারকুমিন' উপাদান শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় ও রক্তকে পরিশুদ্ধ করে।

আমলকী : আমলকী পেটের রোগ কমাতে কাজ করে। যে কোনও ধরনের সংক্রমণ কমাতেও এই ফল উপকারী।
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/42771
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ