Printed on Sun Jun 26 2022 7:33:56 PM

বাইশ গজের বাইরের শেন ওয়ার্ন

স্পোর্টস ডেস্ক
খেলার খবরভিডিও সংবাদ
বাইশ
বাইশ
শেন কিথ ওয়ার্ন- বাইশ গজে কব্জির মোচড়ে তিনি শিল্পী। লেগস্পিনের বিলুপ্ত ঘরানাকে প্রায় একার হাতে ধরে রেখেছিলেন। সমকালীন মুত্তিয়া মুরলীধরনও আলোচনায় ছিলেন মাঠে। তবে ক্রিকেট মাঠের বাইরেও এত রঙিন ছিলেন না। ওয়ার্নের ফ্লিপার বা বিষাক্ত ব্যাকস্পিনের ফাঁদে বার বার ফেঁসেছেন ব্যাটসম্যানরা। ১৪৫টি টেস্টে মোট ৭০৮ জন ব্যাটার তাঁকে উইকেট তুলে দিতে বাধ্য হয়েছেন।

তবে শুধুমাত্র বাইশ গজে নয়, তার বাইরেও কম হইচই করেননি ওয়ার্ন। সেখানে তিনি যেন শুধু ক্রিকেটার নন, হলিউডের তারকা। সব সময়ই যাঁর পিছনে ছুটছেন পাপারাৎজিরা। তাঁদের জন্য ‘মশলাদার খাবার’-এর অভাব রাখেননি ওয়ার্ন।

ওয়ার্নের জীবনে নাকি ক্রিকেট ছাড়াও আরও অনেক কিছু ছিল। সিডনির রেডিয়ো সঞ্চালক লরেন্স মুনি এক বার বলেছিলেন, ওয়ার্নের জীবনে টিন্ডার, বিয়ার, ডার্টস, জুয়া এবং ক্রিকেট— এই পাঁচটি জিনিসই ছিল। ব্যাস!
৫২ বছরের জীবনে হামেশাই জড়িয়ে পড়েছেন যৌন কেলেঙ্কারিতে। রয়েছে মাদক নেওয়ার অভিযোগও। জুয়ার ফাঁদে পা রাখা। এ সবের মধ্যে ওয়ার্নের অনেকগুলো যৌন কেলেঙ্কারি নিয়ে বেশ হইচই হয়েছে।

হলিউড তারকা এলিজাবেথ হার্লির সঙ্গে এক সময় বেশ মাখোমাখো সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল শেন ওয়ার্নের। ২০১০ সাল থেকে নাকি বছর তিনেক টিকেছিল সে সম্পর্ক। সে সময় ওয়ার্নের সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর সিমোন কালাহানের বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছে। তবে ব্রিটিশ অভিনেতা লিজ হার্লি আইনত তখনও অরুণ নায়ারের স্ত্রী। যদিও একসঙ্গে থাকতেন না তাঁরা। ২০১১ সালে অরুণের সঙ্গে লিজের বিচ্ছেদ হয়েছিল। লিজ এবং ওয়ার্নের সম্পর্ক নিয়ে এক সময় ট্যাবলয়েডের পাতা ভরে উঠেছিল। তবে সে সম্পর্ক টেকেনি।

সংবাদমাধ্যমে ওয়ার্ন জানিয়েছিলেন, সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পিছনে বিশেষ একটি কারণ ছিল না। তবে শেনের স্বীকারোক্তি, লিজের সঙ্গে তাঁর প্রাক্তন প্রেমিক অভিনেতা হিউ গ্রান্টের বন্ধুত্বকে সহজ ভাবে মেনে নিতে পারেননি। অন্যদিকে, লিজের সঙ্গে ডেটিংয়ের সময়ই পর্নতারকা ক্লো কনরাডের সঙ্গে ওয়ার্নের ঘনিষ্ঠ ছবিতে পেজ থ্রি-র পাতা ছয়লাব। তাতেই নাকি লিজ-ওয়ার্নের বিচ্ছেদের পথ সহজ হয়েছিল।

সিমোনের সঙ্গে প্রায় ১০ বছরের বিবাহিত জীবন কাটিয়েছেন ওয়ার্ন। তবে ২০০৫ সালে বিবাহিত ওয়ার্নের সঙ্গে নাম জুড়েছিল একাধিক জনের সঙ্গে। ইংলিশ ছাত্রী লরা সেয়ার্স বা টিভি অ্যাসিস্ট্যান্ট কেরি কলিমোর প্রকাশ্যেই তাঁদের প্রেমিক হিসাবে ওয়ার্নের নাম করেছিলেন। সে সময় হামেশাই সিমোনের চোখে পড়ত শিরোনাম— ওয়ার্ন এই মহিলার সঙ্গে, ওয়ার্ন ওই মহিলার সঙ্গে। স্বাভাবিক ভাবেই বিয়ে টেকেনি ওয়ার্নের।

২০০৫ সালে একটি ট্যাবলয়েডের দাবি, কেরির সঙ্গে গাড়ির বনেটের উপর যৌনসঙ্গমে মেতেছিলেন ওয়ার্ন। কেরির এক বন্ধুর দাবি, ‘ওয়ার্ন তো কেরিকে ছাড়তেই চান না। ঘরেবাইরে সবর্ত্র যৌনসঙ্গমের চেষ্টা করতে থাকেন।’' অন্যদিকে, সেয়ার্সের দাবি ছিল যে এক বার তাঁর সামনে জামাকাপড় খুলে ফেলেন ওয়ার্ন। এর পর তাঁর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক গড়ার কথা বলেন।

১৯৯৫ সালে সিমোনের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল ওয়ার্নের। একাধিক যৌন কেলেঙ্কারির পর সিমোনের সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হলেও আবার তাঁর সঙ্গে থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। সে সুযোগও দিয়েছিলেন সিমোন। তবে ফের সিমোনকে ঠকানোর অভিযোগ ওঠে।

ওয়ার্নকে নাকি এক বার হাতেনাতে ধরে ফেলেছিলেন সিমোন। প্রেমিকাকে একটি টেক্সট মেসেজ করেছিলেন ওয়ার্ন। ‘ওগো সুন্দরী, এখন আমার বাচ্চাদের সঙ্গে কথা বলছি। আর (বাড়ির) পিছনের দরজা খোলা... ।’ প্রেমিকার বদলে সেই মেসেজ চলে গিয়েছিল সিমোনের স্মার্টফোনে।

২০০৬ সালে ইংলিশ কাউন্টি হ্যামশায়ারের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল ওয়ার্নের। সে সময়ও ওয়ার্নের উত্তাল যৌনজীবনের ছবি ঘিরেও কম বিতর্ক হয়নি। হোটেলের ঘরে দু’জন ব্রিটিশ মডেলের সঙ্গে নগ্ন ছবিতে দেখা গিয়েছিল ওয়ার্নকে।

ব্রিটিশ নার্স ডোনা রাইটকে অশ্লীল ফোনকল এবং মেসেজ করে হেনস্থার অভিযোগও ওঠেছে ওয়ার্নের বিরুদ্ধে। সে সময় অস্ট্রেলিয়ার সহ-অধিনায়ক ছিলেন ওয়ার্ন। পাশাপাশি সিমোনও তাঁর জীবনে স্ত্রী হিসাবেই ছিলেন। ওই অভিযোগ ঘিরে ঢি ঢি পড়ে যায় অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট জগতেও। যার জেরে সহ-অধিনায়কত্ব হারিয়েছিলেন ওয়ার্ন।

/এএস
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/68818
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ