Printed on Mon Jan 18 2021 4:21:34 AM

মাথা গোঁজার ঠাঁই পাচ্ছে ফরিদপুরের শতাধিক পরিবার

ফরিদপুর প্রতিনিধি
সারাদেশ
মাথা গোঁজার
মাথা গোঁজার
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার শতাধিক ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে মাথা গোঁজার ঠাঁই। তাদের ভাগ্য বদলে নির্মিত হচ্ছে ‘স্বপ্ননীড়’।

প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ১৭৮টি পরিবারের জন্য পুরোদমে সরকারি খাস জমিতে গৃৃহ নির্মাণের কাজ চলছে। অধীর আগ্রহে উপকারভোগীরা সময় পার করছেন কখন তাদের স্বপ্নের গৃহে উঠবে।

‘আশ্রয়নের অধিকার-শেখ হাসিনার উপহার’ মুজিববর্ষে সদরপুর উপজেলায় এসব গৃহ নির্মাণের কাজ করছে সদরপুর উপজেলা প্রশাসন।

১৯ ডিসেম্বর শনিবার দুপুরে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার সদরপুর উপজেলার ভাষানচর ইউনিয়নের হাওলাদার ডাঙ্গী গ্রামে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্যে পুর্নবাসনে ১শটি ঘরের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন।

নির্মাণ কাজ পরিদর্শন শেষে জেলা প্রশাসক অতুল সরকার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্যে দিনরাত পরিশ্রম করে গৃহ নির্মাণকাজ চলছে। আগামী ১৫ জানুয়ারীর মধ্যে কাজ সম্পূর্ণ করে উপকারভোগীদের বুঝিয়ে দেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, গৃহনির্মাণের ফলে এ গ্রামটি অন্যরুপে শোভা পাচ্ছে। এছাড়াও অসহায় পরিবারগুলো মাথা গোঁজার ঠাঁই পাচ্ছে।

মাথা গোঁজার

উপজেলা নির্বাহী অফিসার পূরবী গোলদার বলেন, সদরপুরে ১৭৮টি ঘর বরাদ্দ পেয়েছি। ইতোমধ্যে গৃহনির্মাণের কাজ প্রায়ই শেষের দিকে। জেলা প্রশাসকের সার্বিক দিক নির্দেশনায় আমি নির্মাণ কাজ তদারকি করছি।

গৃহহীন মো. জাবেদ খাঁ বলেন, এতোদিন অনেক কষ্ট করে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে পরের জমিতে থাকতাম। সরকারিভাবে ঘর দেয়া হবে জানতে পেরে উপজেলা প্রশাসনের কাছে আবেদন করে ঘর পেয়েছি। প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ আমাদের মত মানুষের কথা ভেবে ঘর তৈরি করে দেয়ার জন্যে।

সদরপুর উপজেলার কয়েকটি সরকারি খাস জায়গায় ১৭৮টি গৃহনির্মাণ প্রকল্পের কাজ চলছে। প্রথম পর্যায়ে ‘ক’ শ্রেণিভুক্ত ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে দুই শতাংশ খাস জমি দিয়ে ঘর তৈরি করে দেয়া হচ্ছে। দুই কক্ষ বিশিষ্ট প্রতিটি আধা পাকা ঘরের নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে এক লাখ সাত হাজার টাকা। সবগুলো বাড়ি সরকার নির্ধারিত একই নকশায় হচ্ছে।

জেলায় মোট ১ হাজার ৪৭০টি ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে ফরিদপুর সদর উপজেলায় ২৯২টি ঘর, আলফাডাঙ্গায় ২২০টি ঘর, বোয়ালমারীতে ৯২টি ঘর, মধুখালীতে ১৪৮টি ঘর, নগরকান্দায় ১০৫টি ঘর, সালথায় ৩৫টি ঘর, ভাঙ্গায় ২৫০টি ঘর, সদরপুরে ১৭৮টি ঘর, চরভদ্রাসনে ১৫০টি ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। ঘরের সঙ্গে প্রতি পরিবারকে দুই শতাংশ করে জমিও দেয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন : আটরশি দরবারে ভক্তের আত্মহত্যা

ভয়েস টিভি/এমএইচ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/28924
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ