Printed on Wed Jul 28 2021 5:45:06 PM

যে অভ্যাস মানুষকে ধ্বংস করে

মাইমুনা আক্তার
ধর্ম
যে অভ্যাস
যে অভ্যাস
মানুষের কিছু অপরাধ তাকে ধ্বংস করে দেয়। রাসুলুল্লাহ (সা.) তাঁর প্রিয় উম্মতদের বরাবরই সে ধরনের অপরাধ থেকে সতর্ক করতেন। আজ আমরা জানব এমন সাতটি ধ্বংসকারী বস্ত সম্পর্কে, যেগুলোর ব্যাপারে রাসুল (সা.) সাহাবায়ে কেরামকে সতর্ক করেছিলেন।

আল্লাহর সঙ্গে শিরক করা : শিরক ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ। মহান আল্লাহ এই অপরাধ ক্ষমা না করার ঘোষণা দিয়েছেন। হাদিসে কুদসিতে ইরশাদ হয়েছে, রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেছেন, মহান আল্লাহ বলেন, যে লোক আমার সঙ্গে কাউকে শিরক করা ব্যতীত পৃথিবীতুল্য গুনাহ নিয়েও আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে, তাহলে আমি তার সঙ্গে অনুরূপ পৃথিবীতুল্য মার্জনা নিয়ে সাক্ষাৎ করি। (মুসলিম, হাদিস : ৬৭২৬)

অতএব এই ধ্বংসাত্মক কাজ থেকে সবাইকে বিরত থাকতে হবে।

অহংকার : দম্ভ ও অহংকার মানুষকে ধ্বংস করে দেয়। এগুলো মানুষকে এতটাই অন্ধ করে দেয় যে তারা প্রতিটি মুহূর্তে নিজেকে জাহান্নামের দিকে ঢেলে দেয়। মানুষকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করার মাধ্যমে তারা নিজেদের জন্য জাহান্নামের আগুনকে প্রজ্বলিত করে। আবু হুরায়রা (রা.) বলেন, রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন, ‘জাহান্নাম ও জান্নাত পরস্পর তর্ক করছিল। জাহান্নাম বলল, আমাকে দাম্ভিক ও অহংকারী মানুষ দেওয়া হয়েছে, যা তোমাকে দেওয়া হয়নি। জান্নাত বলল, আমার কী দোষ যে দুর্বল, অক্ষম ও গুরুত্বহীন মানুষগুলোই আমার ভেতর প্রবেশ করছে।’ (মুসলিম, হাদিস : ২৮৪৬)

জাদু করা : জাদু-টোনা ইসলামের দৃষ্টিতে নিষিদ্ধ। তাই তা শিক্ষা করা বা জাদুকরদের বিশ্বাস করা হারাম। হাফেজ ইবনে হাজার (রহ.) বলেন, আল্লাহর বাণী—‘আমরা তোমাদের জন্য পরীক্ষাস্বরূপ। সুতরাং তোমরা কুফুরি কোরো না।’ (সুরা বাকারা, আয়াত : ১০২)। এই আয়াত দ্বারা প্রমাণিত হয়, জাদু শিক্ষা করা কুফরি। (ফতহুল বারি : ১০/২২৫)

অন্যায়ভাবে কোনো মানুষকে হত্যা করা : অন্যায়ভাবে মানুষ হত্যা করা গোটা মানবতাকে হত্যার নামান্তর। তা যে পদ্ধতিতেই হোক। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, যে ব্যক্তি কাউকে হত্যা করা কিংবা জমিনে ফ্যাসাদ সৃষ্টি করা ছাড়া যে কাউকে হত্যা করল, সে যেন সব মানুষকে হত্যা করল...। (সুরা মায়েদা, আয়াত : ৩২)

এতিমের সম্পদ (অন্যায়ভাবে) ভক্ষণ করা : পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘নিশ্চয়ই যারা এতিমদের ধন-সম্পদ অন্যায়ভাবে ভক্ষণ করে তারা তো তাদের পেটে আগুন খাচ্ছে; আর অচিরেই তারা প্রজ্বলিত আগুনে প্রবেশ করবে।’ (সুরা নিসা, আয়াত : ১০)

সতীসাধ্বী নারীকে অপবাদ দেওয়া : কারো সম্পর্কে না জেনে তাকে মিথ্যা অপবাদ দেওয়া কবিরা গুনাহ। যদি কেউ কোনো মুমিন সতী নারীর ওপর মিথ্যা অপবাদ আরোপ করে, তা প্রমাণ করতে না পারে, তবে ইসলামী শরিয়তের দৃষ্টিতে অপবাদদাতা নিজেই ৮০ বেত্রাঘাত সাজার দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে যায়। তা ছাড়া এ ধরনের অপরাধ মানুষকে ধ্বংস করে দেয়। (বুখারি, হাদিস : ২৭৬৬)
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/46844
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ