Printed on Mon Mar 08 2021 7:58:41 AM

সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধের প্রতিবাদে বেরোবিতে বিক্ষোভ

বেরোবি প্রতিনিধি
শিক্ষাঙ্গন
সভা-সমাবেশ
সভা-সমাবেশ
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি) ক্যাম্পাসে সকল প্রকার সভা-সমাবেশ ও মৌন মিছিল নিষিদ্ধের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

৭ ফেব্রুয়ারি রোববার বেলা ১১টায় পার্কের মোড় সংলগ্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ২নং গেটের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, বর্তমান উপাচার্য কলিমউল্লাহ একজন স্বৈরশাসকের মতো আচরণ করছেন। তিনি নিজেই অনিয়মের পাহাড় গড়ে তুলেছেন, আর তার অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে যেন কেউ কথা বা প্রতিবাদ না করতে পারে সে কারণেই এমন উদ্ভট সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয় হবে মুক্তাঙ্গন কিন্তু প্রশাসনের এমন নির্দেশনা মূলত স্বৈরতন্ত্রের শামিল। যদি এই স্বৈরাচারী নির্দেশনা দ্রুত প্রত্যাহার না করা হয় তাহলে তীব্র থেকে তীব্রতর আন্দোলন গড়ে তোলার হুশিয়ারি দেন বক্তারা।

শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭৫ একরের সব জায়গায় আমাদের অধিকার আছে। যদি বলেন প্রশাসনিক ভবনে প্রবেশ করতে আমাদের অনুমতি নিতে হবে। আমরা কার কাছে অনুমতি নিবো। নির্দেশনায় বলা হয়েছে ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তি প্রশাসনিক ভবনে প্রবেশ করতে পারবে না। কিন্তু আমাদের প্রশ্ন এই ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তি আসলে কে বা কারা? শিক্ষার্থীদের কাছে এই ক্যাম্পাসের সবথেকে ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তি ভিসি কলিমউল্লাহ ও তার অনুসারীরা।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বক্তারা বলেন, মমতাময়ী আপনি দেখেন, উত্তরবঙ্গের সন্তানদের যে উচ্চশিক্ষার আশায় এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন, তা সম্পূর্ণ ভেস্তে দিচ্ছে ভিসি কলিমউল্লাহ। এই অদক্ষ ভিসি ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত থেকে ঢাকার লিয়াজোঁ অফিসে বসে বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মানকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছেন।

মানবন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল বের করে শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মূলফটক থেকে শুরু করে প্রশাসনিকভবনসহ ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে শেখ রাসেল মিডিয়া চত্বরে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

গত ৩১ জানুয়ারি ঢাকার লিয়াজোঁ অফিসে অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের ৭৫তম (বিশেষ) সভায় প্রশাসন ভবন, ভিসির বাংলো, একাডেমিক ভবন এবং শ্রেণিকক্ষের সামনে মিছিল-মিটিং, অবস্থান ধর্মঘট, বিক্ষোভ প্রদর্শন, স্লোগান, বক্তব্য প্রদান ও মৌন মিছিলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

নির্দেশনা প্রত্যাহারের দাবিতে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে বেরোবি শাখা ছাত্রলীগ। এই নির্দেশনার প্রতিবাদ জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সর্ববৃহত সংগঠন অধিকার সুরক্ষা পরিষদ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/35045
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ