Printed on Fri May 14 2021 4:50:51 PM

সোলার পাম্পে স্বপ্ন বুনছেন কুড়িগ্রামের কৃষকরা

মমিনুল ইসলাম বাবু, কুড়িগ্রাম
সারাদেশ
সোলার পাম্পে
সোলার পাম্পে
সোলার পাম্প আশার আলো দেখাচ্ছে কুড়িগ্রামের চিলমারীর ব্রহ্মপুত্রপাড়ের কৃষকদের। কুড়িগ্রাম বিএডিসি সেচ বিভাগ সৌরচালিত সেচ ব্যবস্থা নির্মাণের ফলে উপজেলার ব্রহ্মপুত্রের তীরে দু’চোখে সোনালী স্বপ্ন নিয়ে ফসল চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের।

পরিবেশবান্ধব এ সোলার পাম্পের মাধ্যমে কৃষি জমিতে সেচ দিয়ে কৃষকরা আবাদ করছেন শাক-সবজি, গম, ধানসহ বিভিন্ন ধরণের ফসল।

নদী ভাঙ্গনের শিকার হয়ে চিলমারীর বেশির ভাগ মানুষজন সর্বশান্ত হয়ে পড়েছে। জমি বাড়িঘর হারিয়ে হয়েছে নিঃস্ব। চর জেগে উঠলেও জমিগুলো পতিত হিসেবে থাকতো। আর এ পদ্ধতির ফলে কৃষকরা তাদের হারানো সম্পদ ফিরে পাওয়ার

 

জমি গুলো। দিন দিন চাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেলতে শুরু করেছিল ব্রহ্মপুত্রের তীর জুড়ে বসবাসরত কৃষকরা। ফসল চাষের ইচ্ছা করলেও নির্ভর করতে হয়েছিলো বৃষ্টির জন্য। ডিজেল দিয়ে চাষ করলেও শেষে পুঁজিই থাকতো না। ফলে বড় বিপাকে পড়েছিল নদীর তীরের কৃষকরা। অবশেষে আশা জগিয়ে তোলার সাথে সাথে সোনালী স্বপ্ন দেখালো সৌরচালিত সেচ পাম্প। ফলে পতিত জমিতে চাষ হচ্ছে গম, ধান, কুমড়া, চিনাসহ বিভিন্ন ফসল। ডিজেল চালিত শ্যালো কিংবা বৃষ্টির উপর নির্ভর করতে হয় না উপজেলার রাজারভিটা, খড়খড়িয়া এলাকার কৃষকদের।

সরেজমিনে উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নের রাজারভিটা এলাকার ব্রহ্মপুত্রের বুকে দেখা যায়, সেচ পাম্প স্থাপনের ফলে সাশ্রয়ী মূল্যে সেচ দিয়ে কৃষকরা আবাদ করছেন তাদের স্বপ্নের ফসল। চরের বুকে অনায়াসে গম, ধান ও শাক-সবজিসহ বিভিন্ন ধরণের ফসল চাষ করছেন কৃষকরা।

রাজারভিটা গ্রামের কৃষক স্কীম ম্যানেজার আসাদুল ইসলাম জানান, এখানকার ফসলের মাঠে কয়েক বছর ধরে ব্যবহার করা হচ্ছে সৌরচালিত পাম্প। পোর্টেবল সেচ বিতরণ ব্যবস্থা নির্মানের মাধ্যমে সেচ এলাকা সম্প্রসারণ কর্মসূচির অধিনে পোর্টেবল সেচ বিতরণ ব্যবস্থা নির্মাণ করেন কুড়িগ্রাম বিএডিসি সেচ বিভাগ।

ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তার জমিতে চুক্তিতে স্থাপন করেছেন সৌর পাম্প। বছর শেষে ৬হাজার টাকা ভাড়া দিতে হয় উক্ত প্রতিষ্ঠানকে। আর এই পাম্প থেকে সেচ নিয়ে ফসল উৎপাদন করেছে কৃষকরা। মৌসুম প্রতি কৃষকের কাজ থেকে শতক প্রতি নেয়া হচ্ছে ১০ থেকে ২০ টাকা। এতে করে কৃষকও লাভবান হচ্ছে কিছু মানুষের কর্মস্থানেরও সুযোগ হয়েছে।

রাজারভিটা এলাকার কৃষক মনজু, হারুন, বেদানা বেগমসহ কয়েকজন ভয়েস টেলিভিশনকে জানান, তারা সোলার পাম্পে খরচ কম হওয়ায় বেশ সুবিধা পাচ্ছে পাশাপাশি ফসল চাষে লাভবানও হচ্ছে।

কুড়িগ্রাম বিএডিসি’র সেচ বিভাগে দায়িত্বরত কর্মকর্তা বলেন, ডিজেল চালিত শ্যালো মেশিনের চেয়ে সৌরচালিত পাম্পে পানির খরচ অনেকটাই কম। তাই পরিবেশবান্ধব এই পাম্প থেকে নিরাপদে সেচ নেয়ার পাশাপাশি কৃষকরা লাভবান হচ্ছে।

ভয়েস টিভি/ডি
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/43273
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ