Printed on Sat Jul 31 2021 6:36:52 AM

মিয়ানমার থেকে আসা হাতি নিয়ে বিপাকে কক্সবাজারের বন বিভাগ

কক্সবাজার প্রতিনিধি
সারাদেশ
হাতি
হাতি
তিন দিন ধরে দুটি হাতি নিয়ে ব্যস্ত রয়েছে কক্সবাজারের বন বিভাগ। বনে ঢুকিয়ে দেয়া ও প্যারা বনে চলে আসা নিয়ে বিপাকে পড়েছে সংশ্লিষ্টরা। প্রয়োজনীয় লজিস্টিক সাপোর্ট না থাকায় এমন অবস্থায় পড়েছে বলে জানিয়েছেন বন বিভাগ। ফলে হাতি দুটি উদ্ধারে বেগ পেতে হচ্ছে তাদের।

গত ২৬ জুন টেকনাফ পৌরসভার জালিয়াপাড়া সংলগ্ন এলাকায় আসা বুনো হাতির জোড় এখন শাহপরীর দ্বীপের ঘোলার চরে অবস্থান করছে। কয়েক দফা চেষ্টা চালাানো হলেও এদের এখনো বনাঞ্চলে প্রবেশ করানো সম্ভব হয়নি।

কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের টেকনাফ রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমেদ টেকনাফ মডেল থানায় এ সংক্রান্ত একটি সাধারণ ডায়েরি ( জিডি নং-১৪২৬ ) করেছেন।

এতে উল্লেখ করা হয়, ২৮ জুন সোমবার সকাল ১০ টার দিকে টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপের পূর্বে নাফ নদীর পশ্চিম দিকের প্যারা বনে অবস্থান করছে হাতি দুটি। এদের উদ্ধার করতে ইআরটি, সিপিজি পেট্রোল টিমসহ পুলিশ, কোস্ট গার্ড, বিজিবি সদস্য এবং জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

গত ২৭ জুন বিকেলে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপ জেটি ঘাট সংলগ্ন নাফ নদীর বালুর চরে হাতি দুটি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা। এর আগে ২৬ জুন শনিবার টেকনাফ পৌর সভার জালিয়া পাড়া প্যারা বনে হাতি জোড়া প্রথম দেখতে পায় স্থানীয়রা। ওই সময় বন বিভাগ হাতি দুটিকে বনে ঢুকিয়ে দেয়ার দাবি করে। কিন্তু রাত পেরিয়ে দিনে হাতি দুটিকে শাহপরীর দ্বীপের জেটি ঘাট বালু চরে দেখতে পাওয়া যায়।

বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (দক্ষিণ) মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির জানান, শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত দীর্ঘ পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টার পর বুনো হাতি দুটি টেকনাফের জালিয়াপাড়া প্যারাবন থেকে উদ্ধার করে বনাঞ্চলের অভ্যন্তরে পাঠিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন এলিফ্যান্ট রেসপন্স টিমের (ইআরটি) সদস্যরা। এ টিমে নেতৃত্ব দিয়েছেন দক্ষিণ বন বিভাগের টেকনাফ রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমেদ।

বর্তমানে হাতি দুটির অবস্থান শাহপরীর দ্বীপ বিজিবি ক্যাম্পের পূর্বে বালুর চরের কাছাকাছি রয়েছে জানা গেছে। শাহপরীর দ্বীপ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জায়েদ হোসাইন বলেছেন, লোকজন সেখানে যাতে ভিড় করতে না পারেন, সেজন্য পুলিশ সেখানে উপস্থিত রয়েছে। এছাড়া বন বিভাগের কর্মকর্তারাও সেখানে রয়েছেন।

টেকনাফ রেঞ্জ কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমেদ জানান, গর্ভবতী হাতি টক খেতে পছন্দ করে। তাই হয়তো পাহাড় থেকে প্যারা বনে টক জাতীয় খাবার খেতে নেমেছিল। টক জাতীয় খাবারের সন্ধানে শাহপরীর দ্বীপের প্যারা বনে চলে এসেছে। এখন হাতি দুটিকে কৌশলে বনাঞ্চলের ভেতরে ঢুকিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। '

তবে নিজস্ব নৌ-যান সহ প্রয়োজনীয় লজিস্টিক সাপোর্ট না থাকায় হাতি দুটিকে উদ্ধার করতে বেগ পেতে হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/47676
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ