Printed on Thu Jan 20 2022 10:06:10 AM

অভিনভ কায়দায় গ্রামের সব কুকুর মেরে ফেলছে বানর!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বিশ্ব
আড়াই শ
আড়াই শ
ভারতের দুটি গ্রামে অন্তত আড়াই শ কুকুরকে মেরে ফেলেছে বানরের পাল। কুকুরগুলোকে ধরে প্রথমে তারা উঁচু ভবন কিংবা গাছের মগডালে নিয়ে যায়। পরে সেখান থেকেই ছুড়ে ফেলছে মাটিতে।

কুকুর আর বানরের এমন শত্রুতায় এখন আতঙ্কে আছে মহারাষ্ট্রের মাজালগাঁও ও লাভুল গ্রামের মানুষরাও।

শুক্রবার ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা লাভুল গ্রামে। এই গ্রামে আর একটি কুকুর ছানাও অবশিষ্ট নেই।

ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করা একটি ভিডিওতেও দেখা গেছে নৃশংস এমন চিত্র। ভিডিওটিতে দেখা যায়, একটি কুকুর ছানাকে একটি ভবনের ছাদে নিয়ে যাচ্ছে একটি বানর!

আরেকটি ভিডিওতে দেখা গেছে, বানরের দলকে গ্রামের ভেতর দিয়ে তাড়া করছে ক্ষিপ্ত একদল কুকুর। এ সময় আশপাশে থাকা নারী ও শিশুরা নিরাপত্তার জন্য দিগ্বিদিক ছুটে পালাচ্ছে। বলা হচ্ছে, একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সূত্র ধরে সেদিন থেকেই বানর আর কুকুরের মধ্যে এমন শত্রুতা তৈরি হয়েছে। কারণ একটি বানরের বাচ্চাকে মেরে ফেলেছিল কুকুরের দল।

গ্রামবাসীরা দাবি করেছে, মূলত প্রতিশোধ নিতেই কুকুরদের ধরে ধরে হত্যা করছে বানররা।

বানর আর কুকুরের এমন যুদ্ধে আতঙ্কিত লাভুল গ্রামের বাসিন্দারা ইতিমধ্যেই বন বিভাগের কর্মকর্তাদের কাছে বিষয়টি জানিয়েছে। উগ্র বানরগুলোকে চিহ্নিত করে আটকের জন্য অনুরোধ করেছে তারা। কিন্তু বেশ কয়েকবার অভিযান চালিয়ে একটি বানরকেও আটক করতে পারেননি বন বিভাগের কর্মকর্তারা।

বন বিভাগের কর্মকর্তারা এই ঝামেলার মীমাংসা করতে না পারায় এখন গ্রামের বাসিন্দারাই অসহায় অবশিষ্ট কুকুরগুলোকে বাঁচানোর চেষ্টা করছে।

কিন্তু এটি করতে গিয়ে ওই গ্রামের বাসিন্দারাই এখন বানরের শত্রু হয়ে যাচ্ছে। শুধু তা-ই নয়, কুকুরকে বাঁচাতে গিয়ে কয়েকজন আহতও হয়েছে।

আতঙ্কের ব্যাপার হলো, গ্রামবাসীর সঙ্গে শত্রুতা বাড়ায় কুকুরের পাশাপাশি এখন শিশুদের ওপরও হামলা করছে ওই বানরগুলো। আট বছরের এক শিশুকে পাঁজাকোলা করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টাও করেছিল তারা।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/61059
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ