Printed on Wed May 25 2022 8:39:11 PM

অম্বানির ছেলের রাজকীয় বিয়ে

অনলাইন ডেস্ক
বিশ্ব
রাজকীয়
রাজকীয়
ভারত তথা দক্ষিণি এশিয়ার সবচেয়ে বড় রিলায়েন্স গ্রুপের চেয়ারম্যান অনিল আম্বানিকে নিয়ে সাধারণ মানুষের কৌতুহলের অন্ত নেই। বলিউডের সঙ্গে তার যে গভীর সম্পর্ক ছিল সেকথা প্রায় সকলেরই জানা। প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরীরাও তার কোটি কোটি সম্পত্তির লোভে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। এমনকী বলিউড নায়িকা টিনা মুনিমকেও শেষমেষ বিয়ে করেছিলেন অনিল আম্বানি। নতুন খবর হলো, বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেন অনিল আম্বানি এবং টিনা আম্বানির বড় ছেলে আনমোল আম্বানি। অনিল আম্বানির ছেলে আনমোল আম্বানির মেহেন্দি থেকে বিয়ের ছবি পুরোটাই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। এ অনুষ্ঠানে দেখা গেছে বলিউডের সবচেয়ে প্রভাবশালী বচ্চন পরিবারের প্রায় সবাইকে। এ রাজকীয় বিয়ে নিয়েই আজকের প্রতিবেদন।

অনিল অম্বানির বড়ছেলের বিয়ে বলে কথা। তারকার ভিড় তো হবেই! ২০ ফেব্রুয়ারি তেমনই হয়েছিল অম্বানিদের বাড়িতে। অনিল-পুত্র জয় আনমোল অম্বানি এবং কৃষ্ণা শাহের বিয়েতে যেন চাঁদের হাট বসেছিল। বলিউড থেকে শুরু করে রাজনীতি বা ফ্যাশন জগতের হোমড়াচোমড়া তারকাদের চ্ছটায় আলোকিত হয়েছিল বিয়ের আসর। মুম্বাইয়ের কাফ প্যারেডে অনিলের বাড়ি ‘সি উইন্ড’-এ বসেছিল জয়-কৃষ্ণার বিয়ের আসর। সেদিন সন্ধ্যায় ওই ১৪ তলা বাড়িতেই হয়েছে রাজকীয় বিয়ের অনুষ্ঠান।

জয়-কৃষ্ণার জীবনের বিশেষ দিনটি উদ্‌যাপনের সাক্ষী হতে হাজির ছিলেন অম্বানিদের পারিবারিক বন্ধু বচ্চনরা। অমিতাভ-জয়া, অভিষেক-ঐশ্বর্যা, শ্বেতাসহ গোটা বচ্চন পরিবারকেই দেখা গিয়েছে ‘সি উইন্ড’-এ। সন্ধ্যার আগেই বিয়ের আসরে পৌঁছেছিলেন অমিতাভ বচ্চন। ধবধবে সাদা কাপড়ের ওপর হালকা ধূসর কাজের কুর্তা-শেরওয়ানির সঙ্গে পাগড়ির সাজে। যেন তিনিই বরকর্তা!

অমিতাভের পাশে জয়ার সাজ ছিল বেশ জমকালো। রিগ্যাল গোল্ডেন এবং গাঢ় লালচে শাড়ির সঙ্গে মানানসই গয়না। কপালে লাল টিপ। হাতে সোনার পোলকি চুড়ি। টেনে বাঁধা খোঁপা। সঙ্গে লম্বা নেকলেসে নিজেকে সাজিয়েছিলেন জয়া। অমিতাভের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন ধর্মেন্দ্র এবং বাসন্তীও।

জয়ার পাশে হেমা মলিনীকেও কম জমকালো দেখায়নি। চওড়া পারের সোনালি বর্ডার দেওয়া শাড়ির জমি ছিল ততধিক রঙিন। সঙ্গে মানানসই নেকলেস ও দুল।

জয়া-হেমার পাশাপাশি সাংসদ সুপ্রিয়া সুলেকেও দেখা গিয়েছে। হেমা সে ছবিও শেয়ার করেছেন ইনস্টাগ্রামে। সংসদীয় রাজনীতিতে ভিন্ন মতাদর্শ থাকলেও এ আসরে যে তারা একসুতোয় গাঁথা, তা-ও জানিয়েছেন হেমা।

অমিতাভ-জয়ার সঙ্গে আরাধ্যাকে নিয়ে গিয়েছিলেন অভিষেক-ঐশ্বরিয়া। তিন জনেই প্রায় একই রঙের পোশাকের সাজগোজ করেছিলেন। লাল লেহাঙ্গায় ঐশ্বরিয়ার পাশে পাশে ছিল আরাধ্যা। পরনে মায়ের মতোই টকটকে লাল লেহঙ্গা-চোলি। ঐশ্বরিয়অ-আরাধ্যার পাশে অভিষেক যেন আরও ফুটে উঠেছেন। চকরাবকরা রঙিন গলাবন্ধ শেরওয়ানির সঙ্গে বাবার মতোই ডিজাইনার পাগড়ি। তবে তিন জনেই প্রায় সব সময় মাস্ক পরে ঘোরাফেরা করেছেন।

অতিথিদের দেখাশোনায় কসুর করেননি নীতা অম্বানিও। জরির কাজের লাল-সবুজে লেহঙ্গা। সঙ্গে সোনালি সূক্ষ্ম কাজের চোলি। দামি পাথরের গয়নার মোড়া। তারকা অতিথিদের পাশে তিনিও কোনও অংশে কম আভা ছড়াননি।

অমিতাভের মেয়ে শ্বেতা বচ্চন নন্দাও আসরে আলো ছড়িয়েছেন। মেয়ে নভ্যা নভেলি নন্দার মতোই তার পরনে ছিল ভারী কাজের ডিজাইনার লেহাঙ্গা। এই বিয়ের জন্য ডিজাইনার জুটি আবু জানি এবং সন্দীপ খোসলার উপরের ভরসা রেখেছেন তাঁরা। জয়ার দু’পাশে বসে আবার ছবির জন্য ‘পোজ’ও দিয়েছেন শ্বেতা এবং নভ্যা। অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন ডিজাইনার সন্দীপ খোসলাও।

যাদের ঘিরে এত আলোর ছটা, সেই জয়-কৃষ্ণা কেমন সেজেছিলেন? বিশেষ দিনটিতে হালকা রঙের উপর সূক্ষ্ম কাজের শেরওয়ানি চাপিয়েছিলেন জয়। সঙ্গে অবশ্য দামি পাথরের জড়োয়া নেকলেস। কৃষ্ণার পরনে ছিল লালচে লেহঙ্গা-চোলি। আপাদমস্তক গয়নার মোড়া। ছেলের বিয়েতে অনিল এবং টিনা অম্বানীর চওড়া হাসিও বেশ খোলতাই হয়েছিল!

এদিকে অনিল আম্বানির পূত্রবধূ কৃশা শাহের ছবি ভাইরাল হতেই তার পরিচয় জানার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন ভক্তরা, কে এই কৃশা শাহ, যিনি আম্বানি পরিবারের পূত্রবধু হয়েছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর তথ্য অনুযায়ী, মুম্বইয়ে জন্মগ্রহণ ও বেড়ে ওঠা কৃশা শাহ একজন সমাজকর্মী এবং উদ্যোক্তা। তিনি ডিস্কো-র প্রতিষ্ঠাতা, এটি একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং কোম্পানি। যেটি আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্কিং, এবং কমিউনিটি বিল্ডিংয়ে বিশেষজ্ঞ। এর আগে, কৃশা যুক্তরাজ্যে অ্যাকসেঞ্চারে কাজ করতেন এবং তারপরে উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য দেশে ফিরে আসেন।

কৃশা শাহ ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজনৈতিক অর্থনীতিতে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। তিনি লন্ডন স্কুল অফ ইকোনমিক্সে পড়াশোনা করেছেন। সামাজিক নীতি ও উন্নয়নেও ডিগ্রি রয়েছেন কৃশার।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/67552
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ