Printed on Sun May 29 2022 4:44:46 AM

আজমেরী গ্লোরীর এক বাস চালাচ্ছিলেন হেলপার, অন্যজন মাদকাসক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয়
আজমেরী গ্লোরী
আজমেরী গ্লোরী
আজমেরী গ্লোরী পরিবহনের দুই বাসের রেষারেষিতে পিষ্ট হয়ে মগবাজার মোড়ে এক হকার কিশোরের মৃত্যু হয়। বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে এক চালক গাড়ি ড্রাইভ করলেও চালকের অনুপস্থিতিতে বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্সহীন অন্য বাস চালাচ্ছিলেন হেলপার।

গত ২০ জানুয়ারি ঘটে যাওয়া এ দুর্ঘটনার জন্য দায়ী দুই বাসের চালককে গ্রেফতারের পর এসব তথ্য জানিয়েছে র‌্যাব।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বুধবার ২৬ জানুয়ারি দুপুরে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি জানান, গত ২০ জানুয়ারি মগবাজার মোড়ে বিকেল ৫টার দিকে আজমেরী গ্লোরী পরিবহনের দুটি বাসের মাঝে পড়ে আহত হন রাকিবুল হাসান (১৪) নামে এক কিশোর। ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে দুর্ঘটনার পর দুই ঘাতক ড্রাইভার বাস দুটি রেখে পালিয়ে যায়।

দুর্ঘটনায় নিহতের পরিবারের সদস্যরা সড়ক ও পরিবহন আইন ২০১৮ এর ৯৮ ও ১০৫ ধারায় ২০ জানুয়ারি রমনা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-১৬। র‌্যাব জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে।

আরও পড়ুন : মগবাজারে দুই বাসের মাঝে চাপা পড়ে প্রাণ গেল শিশুর

র‌্যাব-৩ এর একটি দল ২৫ জানুয়ারি রাতে রাজধানীর পল্টন এলাকা এবং মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর এলাকা থেকে দুই বাসের চালক মো. মনির হোসেন (২৭) ও মো. ইমরানকে (৩৪) গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার দুজনই ঘটনায় তাদের সংশ্লিষ্টতার তথ্য দেয়।

জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার মনির হোসেন (২৭) জানান, তিনি ৫ বছর মধ্যপ্রাচ্যে কর্মরত ছিলেন। গত তিন মাস আগে বাংলাদেশে আসেন। প্রায় দেড় মাস আগে ঢাকায় কর্মসংস্থানের জন্য আসেন। এক মাস থেকে আজমেরী গ্লোরী গাড়ির চালকের সঙ্গে ওই গাড়িতে দৈনিক ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা মজুরিতে হেলপারি শুরু করেন। তিনি মাঝে মধ্যে বাসটি নিজেও চালাতেন।

গত ২০ জানুয়ারি বিকেল ৪টায় আজমেরী গ্লোরী পরিবহন (ঢাকা মেট্রো-ব-১৫-৫৭৮৭) সদরঘাট থেকে গাজীপুর চন্দ্রার উদ্দেশ্যে গাড়ীর মূল চালক চালিয়ে নিয়ে আসেন। পথিমধ্যে চালক সুমন গুলিস্তানে এসে গাড়িটি হেলপার মনির হোসেনের দায়িত্বে দিয়ে যান। মনির গাড়িটি চালিয়ে মগবাজার মোড়ে নিয়ে আসেন।

জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা জানান, মগবাজার মোড়ের সিগন্যাল ছেড়ে দিলে দ্রুত গাড়ি দুইটি এগিয়ে যাচ্ছিল। তাদের উদ্দেশ্য ছিল পরবর্তী স্টপেজে যে আগে পৌঁছাতে পারবে সে বাসের জন্য অপেক্ষারত বেশি সংখ্যক যাত্রীদের তার বাসে নিতে পারবে। এ অবস্থায় এক গাড়ি অন্যটিকে ওভারটেক করার সময় দুই গাড়ির মাঝখানে চাপা পড়ে ওই কিশোর। ঘটনার পরপরই দুই চালক মনির হোসেন ও ইমরান হোসেন বাস দুটি রেখে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

অন্যদিকে ইমরান হোসেন জানান, তিনি মালিকের কাছ থেকে দৈনিক ৩ হাজার ৫০০ টাকা হারে ভাড়ায় নিয়ে বাসটি চালাতেন।

কমান্ডার মঈন বলেন, গ্রেফতার ইমরান মাদকাসক্ত। তার বিরুদ্ধে মাদকাসক্তির কারণে ২০২১ সালে কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে।

আজমেরী গ্লোরী পরিবহনের ঘাতক বাসের একটির মূল চালক সুমন ও মালিকের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে চালকের দায়িত্বে থাকা দুজনকে গ্রেফতার করেছি। আসামিদের থানায় সোপর্দ করা হবে। তদন্তকারী কর্মকর্তা যদি তদন্তে তাদের ব্যত্যয় বা দায় পান তাহলে অবশ্যই আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

ভয়েসটিভি/এমএম
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/64670
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ