Printed on Thu May 19 2022 3:15:46 AM

চলতি বছর সড়কে হাজার মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয়
সড়কে
সড়কে
চলতি বছরের গত জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে দেশে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে ৮৪৮টি। এসব দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে ১ হাজার ১২ জন এবং আহত হয়েছে ১ হাজার ১৪৬ জন। এর মধ্যে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে ৪০৩ জন, যা মোট নিহতের ৩৯ দশমিক ৮২ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৪২ দশমিক ২১ শতাংশ। দুর্ঘটনায় ২০২ জন পথচারী নিহত হয়েছে, যা মোট নিহতের ১৯ দশমিক ৯৬ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ১৪৭ জন, অর্থাৎ ১৪ দশমিক ৫২ শতাংশ।

৫ ফেব্রুয়ারি শনিবার জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসের সড়ক দুর্ঘটনার প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রোড সেফটি ফাউন্ডেশন। তারা সাতটি জাতীয় দৈনিক, পাঁচটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সড়ক দুর্ঘটনায় গত দুই মাসে প্রতিদিন গড়ে ১৭ দশমিক ১৫ জন নিহত হয়েছে। জানুয়ারির তুলনায় ফেব্রুয়ারি মাসে দুর্ঘটনা বেড়েছে ৭ দশমিক ১২ শতাংশ এবং প্রাণহানি কমেছে ৪ দশমিক ৩৪ শতাংশ। এদিকে জানুয়ারি মাসে ১৮৭ মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ২১৬ জন নিহত হয়েছিল। ফেব্রুয়ারি মাসে ১৭১ মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে ১৮৭ জন। জানুয়ারির তুলনায় ফেব্রুয়ারি মাসে প্রাণহানি সামান্য কমলেও এটি কোনো টেকসই উন্নতির সূচক নির্দেশ করছে না। দুর্ঘটনায় ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সী কর্মক্ষম মানুষ বেশি নিহত হয়েছে।

দুর্ঘটনায় প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, ট্রাক ও মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে। মানসিক ও শারীরিকভাবে অসুস্থ ড্রাইভারদের বেপরোয়া গতিতে ট্রাক চালানো এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক ও যুবকদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানোর কারণে তারা নিজেরা দুর্ঘটনায় পতিত হচ্ছে এবং অন্যান্য যানবাহনকে আক্রান্ত করছে। পথচারী নিহতের মাত্রাও চরম উদ্বেগজনক পর্যায়ে। পথচারীরা যেমন সড়কে নিয়ম মেনে চলে না, তেমনি যানবাহনগুলোও বেপরোয়া গতিতে চলে। ফলে পথচারী নিহতের ঘটনা বাড়ছে।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের সড়ক দুর্ঘটনার পর্যবেক্ষণে দেখানো হয়েছে, দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ৪১ দশমিক ৬২ শতাংশ জাতীয় মহাসড়কে, ৩৪ দশমিক ৭৮ শতাংশ আঞ্চলিক সড়কে, ১৬ দশমিক ৮৬ শতাংশ গ্রামীণ সড়কে, ৫ দশমিক ৪২ শতাংশ শহরের সড়কে এবং অন্যান্য স্থানে ১ দশমিক ২৯ শতাংশ সংঘটিত হয়েছে। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বেশি দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনায় সম্পৃক্ত যানবাহনের মধ্যে ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান-পিকআপ বেশি ছিল। দুর্ঘটনা সকালের দিকে সবচেয়ে বেশি ঘটেছে। সড়ক দুর্ঘটনায় চট্টগ্রাম বিভাগে সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি ঘটেছে এবং সবচেয়ে কম সিলেট বিভাগে। তবে ঢাকায় ২১টি দুর্ঘটনায় ২৭ জন নিহত হয়েছে।

এই প্রতিবেদন বিষয়ে রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমান বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সরকারের কোনো উদ্যোগ দৃশ্যমান নয়। ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮’ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মধ্যে কোনো আগ্রহ দেখা যাচ্ছে না। সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে মূলত সড়ক পরিবহন খাতের নৈরাজ্য ও অব্যস্থাপনার কারণে। এই অবস্থার উন্নয়নে সরকারের রাজনৈতিক সদিচ্ছা প্রয়োজন।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/68532
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ