Printed on Thu May 19 2022 3:01:44 AM

টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীর গুলিতে বাংলাদেশি যুবক নিহত

কক্সবাজার প্রতিনিধি
সারাদেশ
টেকনাফে রোহিঙ্গা
টেকনাফে রোহিঙ্গা
কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী জাকিরের গুলিতে আবদুস শুক্কুর (৩২) নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। ৫ নভেম্বর সকাল ১১টার দিকে নিজ বাড়ির পাশে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

তিনি টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড জাদিমুড়া শালবাগান এলাকার আবুল বসরের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, বেশ কিছুদিন ধরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী টেকনাফের লেদা, নয়াপাড়া ও শালবাগান এলাকায় অভিযান জোরদার করেছে। র‌্যাব ও এপিবিএন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এসব এলাকায় অভিযান চালিয়ে আলোচিত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী, নুর-উর-নবী, শালমান শাহসহ বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে।

উদ্ধার করেছে এলএমজি, ইয়াবা ও কিরিচ। তবে এখনও অধরা রয়েছে আলোচিত রোহিঙ্গা সন্তাসী আব্দুল হাকিম, খালেক ও জহির। নিহত শুক্কুর বিভিন্ন সময়ে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের ধরতে আইনশৃংখলা বাহিনীকে সহায়তা করতেন। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে রোহিঙ্গা সস্ত্রাসী জকির বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে শুক্কুরকে গুলি করে হত্যা করেন।

নিহতের পিতা আবুল বসর বলেন, আমার ছেলে সকাল বেলা বাড়ি থেকে বের হয়ে দোকানের দিকে যাচ্ছিল। ওর চাচার বাড়ির পাশে পৌঁছালে আগে থেকে উৎপেতে থাকা রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা চারিদিক থেকে তাকে ঘেরাও করে। এসময় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী জকির ডাকাত সরাসরি সামনে থেকে তাকে বেশ কয়েকটা গুলি করে। পরে মৃত্যু নিশ্চিত করে ওরা পাহাড়ের দিকে চলে যায়। কয়েক’শ স্থানীয় ও রোহিঙ্গারা এ ঘটনার প্রত্যক্ষ্যদর্শী। তবে কেউ এই রোহিঙ্গা ডাকাতদের ভয়ে এগিয়ে আসেনি।

তিনি আরো জানান, আগের দিন রাতেও র‌্যাব সদস্যরা শালবাগানে অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় আমার ছেলে আইনশৃংখলা বাহিনীর সঙ্গে ছিলো এমন অভিযোগে এ নিষ্ঠুর কাজ করলো জকির বাহিনী।

এদিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে টেকনাফ মডেল থানার পরিদর্শক (অপারেশন) খোরশেদ আলম মরদেহের সুরত হাল প্রতিবেদন তৈরি করে লাশ উদ্ধার করেন। এসময় তিনি বলেন, নিহতের শরীরে বেশ কয়েকটি গুলির চিহ্ন রয়েছে।

হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী বলেন, রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। একই এলাকায় বছর খানেক আগে যুবলীগ সভাপতি ওমর ফারুককে হত্যা করে তারা। এবার প্রকাশ্যে দিবালোকে শুক্কুরকে হত্যা করলো।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আব্দুল আলিম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে যথাযথ আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দায়িত্ব পালনকারী সংস্থা আর্ম পুলিশ ব্যাটলিয়ন-১৬ এর অধিনায়ক হেমায়েতুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলের কয়েক গজের মধ্যেই এপিবিএন ক্যাম্প রয়েছে। এখানে এ ধরনের ঘটনা দুঃখজনক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আইনশৃংখলা বাহিনী জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে কাজ শুরু করেছে।

ভয়েস টিভি/এমএইচ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/21525
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ