Printed on Sat Dec 04 2021 8:20:08 AM

রাসেল ডমিঙ্গো ‘ওএসডি’!

নিজস্ব প্রতিবেদক
খেলার খবর
ডমিঙ্গো ওএসডি
ডমিঙ্গো ওএসডি
বিশ্বকাপের মাঠে বাংলাদেশ দলের অনুশীলন থেকে শুরু করে রণকৌশল- সব কিছুরই পুরোধা ছিলেন রাসেল ডোমিঙ্গ। কিন্তু ঢাকায় ফেরার পর অনুশীলনের শুরুর দিন থেকে এই দক্ষিণ আফ্রিকানকে আতিপাতি খুঁজে নিতে হচ্ছে।

‘অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি’- বিশেষ দায়িত্বপালনরত ঊর্ধ্বতন। আদতে তার কোনো কাজ নেই। পোস্টিংটা মূলত শাস্তিমূলক রাসেল ডমিঙ্গোর।

পরিচয়ে যদিও তিনি বাংলাদেশ জাতীয় দলের হেড কোচ। কিন্তু গতকাল যেমন মাহমুদ উল্লাহরা প্রস্তুতিতে নামার বেশ পরে ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে আসতে দেখা গেছে তাকে। তখন পুরো দলকে একত্র করে অনুশীলনের খুঁটিনাটি বোঝাচ্ছিলেন নবনিযুক্ত ফিল্ডিং কোচ মিজানুর রহমান বাবুল। ড্রেসিংরুমের সামনে তখন কম্পিউটার অ্যানালিস্ট শ্রীনিবাস চন্দ্রশেখরনের সাথে আলোচনায় ব্যস্ত টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ। এমন ভঙ্গিতে ড্রেসিংরুম থেকে মাঠে ঢুকলেন যেন সামনে কাউকে নজরেই পড়েনি ডমিঙ্গোর। মাহমুদও অপসৃয়মাণ কোচের পথে দৃষ্টি ফেলেননি।

বিশ্বকাপের আগে ডমিঙ্গোর এই ‘পথচলা’ থামত মাঠের মাঝখানের উইকেটে গিয়ে। কিন্তু গত দুই দিন অত দূরও যাননি। বুকে হাত বেঁধে একপলক দেখলেন টিম হাডলে কথা বলছেন মিজানুর রহমান। দেখে উল্টো ঘুরে উদ্দেশ্যহীন কয়েক পা এগিয়ে থামলেন ডমিঙ্গো। কিন্তু দলের কাছেও যাননি। সেখানেই স্থাণুর মতো কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকে হেড কোচ হেঁটে এগিয়ে যান মাহমুদের কাছে। কিছু একটা বলে থাকবেন টিম ডিরেক্টরকে। উত্তরে ইশারায় ড্রেসিংরুম দেখিয়েছেন মাহমুদ। কোচকে সেখানে যেতে বললেন মাহমুদ নাকি ড্রেসিংরুমে মুশফিকুর রহিম আছেন বলে জানালেন, অত দূর থেকে অনুমান করাও কঠিন।

তবে পরিস্থিতি দেখে এটা পরিষ্কার যে হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর পাশে এখন আর কেউ নেই। এমনকি বিশ্বকাপের পর একযোগে বিদেশি কোচিং স্টাফদের বিরুদ্ধে আওয়াজ উঠলেও পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন কিংবা ব্যাটিং কোচ অ্যাশওয়েল প্রিন্সের গতিবিধি দেখে মনে হচ্ছে পায়ের তলায় মাটি খুঁজে পেয়েছেন তাঁরা। সব মিলিয়ে বাংলাদেশ দলের ছবিটা খুব স্বস্তিদায়ক নয়।

বিশ্বকাপে ফল ভালো হয়নি দল ও তাসকিন আহমেদের। ব্যর্থ মিশন থেকে ফেরার পরই মুখোমুখি হতে হবে বিশ্বকাপে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলা পাকিস্তান দলকে। স্বভাবতই সর্বোচ্চ মনোযোগ আসন্ন সিরিজে রাখতে চাচ্ছেন বাংলাদেশ দলের এই পেসার।

তাসকিন আহমেদ বলেন, ‘সত্যি বলতে বিশ্বকাপে আমাদের দলগত পারফরম্যান্স ভালো হয়নি, কিন্তু সেটা এখন অতীত। পাকিস্তান সিরিজে নতুনভাবে শুরু করতে চাই। অবশ্যই কঠিন হবে। তবে সেরাটা দিয়ে ভালো কিছু করতে চাই। দেশকে ভালো কিছু উপহার দিতে চাই।’

তাসকিন আরও বলেন, ‘ফাস্ট বোলাররা সব সময় বোলিং সহায়ক উইকেট চায়, কিন্তু সাদা বলে এমন উইকেটে কমই খেলা হয়। স্পোর্টিং উইকেট বেশি হয়। মিরপুরেও তেমন উইকেট আশা করছি, যেখানে ব্যাটার-বোলাররা সমান সুবিধা পাবে।’
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/58521
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ