Printed on Sun Nov 28 2021 4:51:42 AM

দেশের সেরা ১০ সুন্দরী আবেদনময়ী নায়িকা!

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিনোদনভিডিও সংবাদ
দেশের
দেশের
হলিউড, বলিউডের সঙ্গে পাল্লা দিতে না পারলেও ঢাকাই সিনেমায় বেশ কয়েকজন নজরকাড়া সুন্দরীর আবির্ভাব ঘটে। এসব আবেদনময়ী অভিনেত্রীরা বড় পর্দায় নিজেদের কাজ ও রূপের মাধুর্য দিয়ে দর্শকের মন জয় করে নিয়েছে। আজ জানাবো বাংলাদেশের সবচেয়ে আবেদনময়ী ১০ সুন্দরী নায়িকা সম্পর্কে।



জয়া আহসান
তালিকার শীর্ষে রয়েছেন কয়েক প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় চির তরুণী অভিনেত্রী জয়া আহসান। বর্তমান সময়ের সেরা আবেদনময়ী অভিনেত্রীদের মধ্যে শীর্ষে রয়েছেন। বাংলাদেশ ও কলকাতা দুই বাংলাতেই দাপিয়ে কাজ করছেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। গোপালগঞ্জে জন্ম নেয়া জয়া কখনও তার বয়স প্রকাশ করেননি। দিন দিন সৌন্দর্য বেড়েই চলেছে এই অভিনেত্রীর।

অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি চারটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, ছয়টি মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার ও তিনটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার অর্জন করেছেন। বড় পর্দায় বেছে বেছে কাজ করা জয়া ২৩টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন।



পূর্ণিমা
তিনি তিন প্রজন্মের ক্রাশ হিসেবে পরিচিত জনপ্রিয় অভিনেত্রী দিলারা হানিফ রীতা। তিনি চলচ্চিত্র জগতে পূর্ণিমা নামে অধিক পরিচিত। ৪০ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীর জন্ম চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে। পূর্ণিমা চলচ্চিত্র জগতে পা দেন জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন তোমার আমার’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্যে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে তিনি প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। পূর্ণিমার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় রিয়াজের বিপরীতে। রিয়াজের বিপরীতেই ২৫টির বেশি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।



নুসরাত ফারিয়া
বর্তমান সময়ে সুপার হট অভিনেত্রীদের অন্যতম একজন নুসরাত ফারিয়া। নায়িকা হওয়ার আগে তিনি টিভি উপস্থাপিকা, রেডিও জকি ও বিজ্ঞাপনের মডেল হিসেবে কাজ করেছেন। ২৮ বছর বয়সি এই চিত্রনায়িকা বিজ্ঞাপনচিত্রে গ্লামারাস হিসেবে উপস্থিতি এবং ভিন্নধর্মী উপস্থাপনার কারণে দারুণ পরিচিত। ভারত-বাংলাদেশ উভয় দেশেই সমান জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। ওপার বাংলার বেশ কয়েকজন শীর্ষ অভিনেতার সঙ্গে জুটি বেঁধে দারুণ অভিনয় করেছেন নুসরাত ফারিয়া।

২০১৫ সালে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার আশিকী চলচ্চিত্র দিয়ে তার বড় পর্দায় অভিষেক হয়। এই কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ নবীন অভিনয়শিল্পী হিসেবে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অর্জন করেন।



মাহিয়া মাহি
চলচ্চিত্রের ফিন্সেস খ্যাত অভিনেত্রীর মাহিয়া মাহি। ২০১২ সালে ‘ভালোবাসার রঙ’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে তার অভিষেক হয়। ২৮ বছর বয়সী এ অভিনেত্রীর আসল নাম শারমিন আকতার নিপা। রাজশাহীতে জন্ম নেয়া মাহী বর্তমানে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক প্রাপ্ত অভিনেত্রী। ২০১৯ সালে মাহীকে নিয়ে বই প্রকাশ করেন তার ভক্তরা, বইটির নাম ‘মাহী দ্য প্রিন্সেস’।

৫ ফুট ৬ ইঞ্চি উচ্চতার এই অভিনেত্রী এখন পর্যন্ত ৩১টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ৪টি মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার ও ২টি বাচসাস পুরুস্কার অর্জন করেন।



শবনম বুবলী
ঢালিউড কিং শাকিব খানের নায়িকা হিসেবে পরিচিত শবনম বুবলী ঢাকাই সিনেমার অন্যতম আলোচিত চরিত্র। সংবাদ পাঠিকা থেকে নায়িকা হন নোয়াখালীর মেয়ে বুবলী। তিনি শাকিব খানের সঙ্গে বেশ কয়েকটি ব্যবসাসফল ছবি উপহার দিয়েছেন। তাঁর রূপ ও অভিনয় দর্শক মনে বেশ সাড়া ফেলেছে।

২০১৬ সালে বসগিরি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পে তার অভিষেক ঘটে। চলচ্চিত্রটির মাধ্যমে তিনি শ্রেষ্ঠ নবীনশিল্পী বিভাগে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অর্জন করেন। এ পর্যন্ত বুবলী ১৫টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।



পরিমনি
বর্তমানে ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরিমনি। ২০১২ সালে উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করে অভিনয় জগতে পা রাখেন ২৯ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী। এরপর একে একে বিভিন্ন ছবিতে অভিনয় করে দর্শকের মন কেড়েছেন। তাঁর রূপ ও সৌন্দর্য সহজেই মানুষকে আকৃষ্ট করে। সাম্প্রতিক সময়ে নানা কারণে সংবাদের শিরোনাম হচ্ছেন। বিনোদন সংবাদের পুরোটা জুড়েই তার অবস্থান। মাদক মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেলও খাটতে হয়েছে তাকে।

তার আসল নাম শামসুন্নাহার স্মৃতি। ২০১৫ সালে ভালোবাসা সীমাহীন চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার বড় পর্দায় অভিষেক হয়। তবে ২০১৫ সালে রানা প্লাজা ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়ে তিনি আলোচনায় আসেন। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হল- প্রণয়ধর্মী সিনেমা আরো ভালোবাসবো তোমায়, লোককাহিনী নির্ভর সিনেমা মহুয়া সুন্দরী, এবং অ্যাকশনধর্মী ছবি রক্ত। এ পর্যন্ত ৩১টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন পরিমনি।



বিদ্যা সিনহা মীম
মডেল ও অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মীম। লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার ২০০৭ প্রতিযোগিতায় প্রথম-স্থান লাভ কেরন। ৫ ফুট সাড়ে ৮ ইঞ্চি উচ্চতার এই অভিনেত্রীর জন্ম রাজশাহীর বাঘায়। ২০০৭ সালে হুমায়ুন আহমেদ পরিচালিত আমার আছে জল সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে তার অভিষেক হয়। জোনাকির আলো চলচ্চিত্রে অভিনয় করে ৩৯তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে মৌসুমীর সাথে যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার অর্জন করেন। ২৮ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী এখন পর্যন্ত ২০টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

দেশের বর্তমান জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের মধ্যে প্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা মিম। নজরকাড়া রূপ দিয়ে দর্শককের মন কেড়েছেন তিনি। এছাড়া দারুন সব বিজ্ঞাপন, টিভি নাটক ও সিনেমায় আভিনয় করে খ্যাতি কুড়িয়েছেন আবেদনময়ী এই নায়িকা।



অপু বিশ্বাস
ঢালিউডের অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস অর্ধশতাধিক সিনেমায় অভিনয় করে দর্শক হৃদয় রাঙ্গিয়েছেন। ৩২ বছর বয়সী আবেদনময়ী এই অভিনেত্রীর জন্ম বগুড়ায়। তিনি ২০০৬ সালে আমজাদ হোসেন পরিচালিত কাল সকালে চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র শিল্পে পদার্পণ করেন। তিনি ২০০৬ সালে এফআই মানিক পরিচালিত কোটি টাকার কাবিন চলচ্চিত্রে শাকিব খানের বিপরীতে প্রধান নায়িকা হিসাবে অভিনয় করেন। অপু বিশ্বাস ৭২টিরও অধিক চলচ্চিত্রে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন। কর্মজীবনে তিনি একটি বাচসাস পুরস্কার অর্জন করেছেন এবং ছয়বার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারে মনোনয়ন লাভ করেন।



মৌসুমি
প্রিয়দর্শিনী অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিত তিনি। প্রায় একশ সিনেমায় অভিনয় করেছেন তুমুল জনপ্রিয় এই চিত্রনায়িকা। দর্শক এখনও মুগ্ধ তার অভিনয়ে। যার কথা বলছি- তিনি আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী। যিনি মৌসুমী নামে অধিক পরিচিত। ৪৭ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীর জন্ম খুলনায়। মৌসুমী অভিনীত প্রথম ছায়াছবি কেয়ামত থেকে কেয়ামত। চলচ্চিত্রের পাশাপাশি ছোট পর্দার বেশ কিছু নাটক ও বিজ্ঞাপন চিত্রে অভিনয় করেছেন মৌসুমী।

এছাড়া ২০০৩ সালের চলচ্চিত্র কখনো মেঘ কখনো বৃষ্টি পরিচালনার মাধ্যমে একজন পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। মৌসুমীর নিজস্ব প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানও আছে। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। এছাড়াও অর্জন করেন একাধিক বাচসাস পুরস্কার ৬ বার মেরিল ও প্রথম আলো পুরস্কার। মৌসুমী প্রায় ৯০টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।



শাবনূর
দেশের চলচ্চিত্র শিল্পের অন্যতম সফল অভিনেত্রী শাবনূর। তার আসল নাম কাজী শারমিন নাহিদ নূপুর। ৫ ফু ৩ ইঞ্চি উচ্চতার ৪১ বছর বয়সী এ অভিনেত্রীর জন্ম যশোরে। ১৯৯৩ সালে চাঁদনী রাতে চলচ্চিত্র দিয়ে শাবনূরের চলচ্চিত্রে অভিষেক। সালমান শাহের সাথে জুটি বেধে তিনি সফলতা লাভ করেন।

শাবনূর ২০০৫ সালে মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত দুই নয়নের আলো ছবিতে অভিনয় করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। এছাড়া তিনি ছয়বার বাচসাস পুরস্কার অর্জন করেছেন। তিনি রেকর্ড সংখ্যক ১০ বার তারকা জরিপে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার লাভ করেছেন। প্রায় দেড় শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন শাবনূর।



পুজা চেরি রায়
উল্লেখিত দশজনের বাইরেও হাল আমলের আরেকজন আবেদনময়ী নায়িকা হলেন পূজা চেরি। মডেলিং ও শিশুশিল্পী হিসেবে তিনি কর্মজীবন শুরু করেন। শিশুশিল্পী হিসেবে কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পর ২০১৮ সালে নূর জাহান চলচ্চিত্র দিয়ে তার বড় পর্দায় অভিষেক ঘটে। তাঁর অভিনীত পোড়ামন-২ ও দহন চলচ্চিত্র দর্শকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

খুলনার মেয়ে পুজা বাংলা সিনেমার সবচেয়ে কম বয়সী নায়িকা। দর্শকের মনকাড়া অভিনয়ের মধ্য দিয়ে সুনাম কুড়িয়েছেন ২১ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী। এ পর্যন্ত ১৭টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন পূজা। বর্তমানে তরুণ প্রজন্মের কাছে হার্টথ্রুব নায়িকা পুজা চেরি।

ভয়েসটিভি/এএস
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/57954
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ