Printed on Sat Sep 25 2021 9:43:30 AM

পরীমনি-সাকলায়েনের ভাইরাল ভিডিও অপসারণে রিট

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয়
পরীমনি-সাকলায়েনের ভাইরাল ভিডিও অপসারণে রিট
পরীমনি-সাকলায়েনের ভাইরাল ভিডিও অপসারণে রিট
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনি ও পুলিশ কর্মকর্তা গোলাম সাকলায়েন শিথিলের ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি ও ভিডিও সব প্ল্যাটফর্ম থেকে সরানোর নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে। একইসঙ্গে ওই ঘটনা নিয়ে করা সব প্রতিবেদনও সরানোর নির্দেশনা চাওয়া হয়। এছাড়া রিটে মৃত কলেজছাত্রী মুনিয়া ও জেকেজির ডা. সাবরিনার ব্যক্তিগত জীবনের ভিডিও সরাতে নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

২৫ আগস্ট বুধবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তাসমিয়া নুহাইয়া আহমেদ এ রিট দায়ের করেন। রিটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সব ধরনের অনলাইন থেকে চরিত্রহরণ করে কারও ব্যক্তিগত আপত্তিজনক ছবি বা ভিডিও প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা চাওয়া হয়েছে।

রিটে বিবাদী করা হয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নির্ধারণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান, তথ্য সচিব, টেলিকমিউনিকেশন সচিবকে।

বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চে রিট আবেদনটি শুনানি হবে।

আইনজীবী তাসমিয়া নুহিয়া আহমেদ বলেন, আমরা দেখতে পাচ্ছি কিছু ব্যক্তিকে নির্দিষ্টভাবে টার্গেট করে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে। যেখানে মূলধারার গণমাধ্যমসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি ও ভিডিও প্রকাশ হচ্ছে। এতে বিশেষ করে নারীদের চরিত্রটাকে টার্গেট করেই এটা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, সম্প্রতি পরীমণি, কলেজছাত্রী মুনিয়াসহ অনেকের ব্যক্তিগত ভিডিও প্রকাশ হয়েছে। যা সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত আক্রোশ থেকে এবং তাদের চরিত্রকে হরণ করার জন্যই করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রতিবেদন যুক্ত করে আমরা হাইকোর্টে রিট করেছি।

এদিকে নায়িকা পরীমনির সঙ্গে গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) গোলাম সাকলায়েনের প্রেমের সম্পর্কের তথ্য সামনে আসার পর বিষয়টির তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে পুলিশ সদর দপ্তর। ৮ আগস্ট রোববার পুলিশের অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক (অ্যাডিশনাল ডিআইজি-ট্রেনিং) মিয়া মাসুদ করিমকে প্রধান করে এ কমিটি করা হয়।

পুলিশ সদর দপ্তর সূত্র জানায়, কমিটির বাকি দু’জন হলেন, ডিএমপির উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন সেন্টারের উপ-কমিশনার (ডিসি) হামিদা পারভিন এবং সিআইডির ফরেনসিক বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার (এসএস) রুমানা আক্তার।

তদন্ত কমিটিকে সাকলায়েনের বাসায় পরীমনির যাতায়াতে সাকলায়েন যে মামলার তদারকি কর্মকর্তা সেই মামলার তদন্তে কোনো ধরনের প্রভাব পড়েছে কিনা, সাকলায়েন পুলিশের আইন অনুযায়ী কোনো অপরাধ করেছে কিনা ইত্যাদি তুলে ধরতে বলা হয়েছে। সার্বিক বিষয়গুলো তদন্তে কমিটিকে ১৫ কার্যদিবস সময় দেওয়া হয়েছে। তদন্ত শেষে কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে ৭ আগস্ট শনিবার পরীমনির সঙ্গে ডিবি কর্মকর্তা গোলাম সাকলায়েনের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগে তাকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা গুলশান বিভাগ থেকে পিওএম পশ্চিমে বদলি করা হয়।

আরও পড়ুন : পরীমণির সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক: ডিবি থেকে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে শিথিলকে

ভয়েস টিভি/এএন
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/52248
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ