Printed on Sat Dec 04 2021 8:48:24 AM

পুলিশ দেখে মাদক ফেলে পালাল ইউপি চেয়ারম্যান, আটক ৭

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
সারাদেশ
পালাল ইউপি
পালাল ইউপি
কুড়িগ্রামের চিলমারীতে পুলিশের মাদক অভিযানের সময় মোটর সাইকেল ও মাদক ফেলে পালিয়ে গেলেন সাবেক রমনা ইউপি চেয়ারম্যান নুর-ই-এলাহী তুহিন। এ সময় তার ৭ মাদকসেবী সঙ্গীকে আটক করে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, রমনা মিস্ত্রী পাড়া এলাকার মৃত: আবু বক্করের ছেলে সোহেল রানা (৩০), জোড়গাছ নতুন বালাজান এলাকার নজির হোসেনের ছেলে মোখলেছুর রহমান (৪৬), মুদাফৎ থানা বেলের ভিটা এলাকার মৃত: আহসান হাবীবের ছেলে বদরুল আলম (৪৩), একই এলাকার আব্দুল খলিলের ছেলে আশরুফুল ইসলাম (২৬), খড়খড়িয়া ভট্টপাড়া এলাকার আজিজুল হক ব্যাপারীর ছেলে চাঁন মিয়া (৪০), জোড়গাছ মন্ডলপাড়া এলাকার নজির হোসেনের ছেলে ফারুক মিয়া (৪০) ও পশ্চিম খড়খড়িয়া এলাকার জাহেদুল হকের ছেলে হোসেন আলী (২৩)।

পরে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নুর-ই-এলাহী তুহিনকে ১নং আসামী করে বুধবার সকালে চিলমারী মডেল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা করা হয়। এরপর দুপুরে কুড়িগ্রাম আদালতে প্রেরণ করা হয় আসামীদের। এ সময় আটকৃতদের গাঁজা সেবনের কলকী, ১০০ গ্রাম গাঁজা ও দুটি মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়। দুটি মোটরসাইকেলের মধ্যে একটি চেয়ারম্যান তুহিনের বলে জানা যায়।

চিলমারী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আনোয়ারুল ইসলাম ভয়েস টিভিকে বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার রমনা ইউনিয়নের জোড়গাছ পুরাতন বাজারে জনৈক হোসেন আলীর খাবারের দোকানে অভিযান চালাই। সেখানে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সাবেক রমনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুর-ই-এলাহী তুহিন ও আব্দুর রাজ্জাক নামে দুজন পালিয়ে যায়। সেখানে গাঁজা সেবনরত অবস্থায় ৭ জনকে আটক করতে পারি। এ সময় তাদের কাছ থেকে গাঁজা সেবনের কলকী, ১০০ গ্রাম গাঁজা ও দুটি মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়। জব্দকৃত দুটি মোটর সাইকেলের মধ্যে একটি চেয়ারম্যান তুহিনের।’

অফিসার মো. আনোয়ারুল ইসলাম জানান, সাবেক রমনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুর-ই-এলাহী তুহিন ও আব্দুর রাজ্জাককে গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহ রয়েছে।

ভয়েসটিভি/এমএম
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/58711
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ