Printed on Tue Sep 28 2021 8:27:18 PM

ফেনীতে ১৮ দিনে ১০৪ জনের মৃত্যু

ফেনী প্রতিনিধি
সারাদেশ
ফেনীতে ১৮ দিনে ১০৪ জনের মৃত্যু
ফেনীতে ১৮ দিনে ১০৪ জনের মৃত্যু
ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ডেডিকেটেড করোনা ইউনিটে একদিনে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত সময়ে তারা মারা যান। জেলায় একদিনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড এটি।


এ নিয়ে চলতি আগস্ট মাসের ১৮ দিনে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়ে মারা গেছেন ২০ জন। এছাড়া করোনা উপসর্গে  মারা গেছেন আরও ৮৪ জন। যা করোনা পজিটিভের চার গুন বেশী। এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট ১১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।


নির্ভরযোগ্য এক সূত্র জানায়, সোমবার থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে আইসিইউ ইউনিটে পরশুরাম উপজেলার চৌমুড়ী গ্রামের বিবি রহিমা (৬১) ও আইসোলেশন ইউনিটে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার আকরামের নেছা (৬৫) মারা যান। এছাড়া আইসিইউতে ছাগলনাইয়া উপজেলার জাহান আরা বেগম (৩৫), পরশুরাম উপজেলার সাজেদা আক্তার (৫৫), সদর উপজেলার বালিগাঁও ইউনিয়নের হোসনেআরা বেগম (৭১), মোটবী ইউনিয়নের লস্করহাট এলাকার সেতারা বেগম (৬৩), শহরের বিরিঞ্চি এলাকার আনোয়ারা বেগম (৭০), সোনাগাজী উপজেলার নুরজাহান (৫৭), আইসোলেশনে সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়নের জাবেদা বেগম (৭০), সোনাগাজী উপজেলার আবুল বাশার (৬০) মারা গেছেন।


হাসপাতাল সূত্র আরো জানায়, গত জুলাই মাসে করোনা ইউনিটে ৮২ জন মারা যান। এদের মধ্যে ৩ জন করোনা পজিটিভ ছিলেন। বাকিরা উপসর্গে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। গত ১ আগস্ট থেকে ১৭ আগস্ট মঙ্গলবার পর্যন্ত ১৮ দিনে আইসোলেশন ইউনিটে ৬ জন পজিটিভসহ ৬৯ জন মারা গেছেন। আর আইসিইউ-সিসিউতে ২৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখানেও ৬ জন পজিটিভ ছিলেন।


ফেনী জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাঃ আবুল খায়ের মিয়াজী জানান, হাসপাতালের কোভিড ডেডিকেটেড ইউনিটে রোগী ভর্তি রয়েছেন ১২৪ জন। এর মধ্যে কোভিড পজিটিভ রয়েছেন ৩৪ জন। উপসর্গ নিয়ে ভর্তি আছেন ৯০ জন। ১০৪ জনকে অক্সিজেন সেবা দিতে হচ্ছে।


হাসপাতালের আরএমও ডাঃ মো. ইকবাল হোসেন ভূঁঞা জানান, গত ২৪ ঘন্টায় দুইজন করোনা পজিটিভ ও অপর ৯ জন রোগী করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।


তিনি জানান, গ্রামের রোগীরা সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হন। এছাড়া অতি সম্প্রতি শহরের একাধিক বেসরকারী হাসপাতালেও কোভিড উপসর্গের রোগী ভর্তি করা হচ্ছে। সেখানে রোগীর অবস্থা খারাপ হলে কিছু রোগী তখন জেনারেল হাসপাতালে চলে আসেন। এগুলোই বেশী সমস্যা হয়। ডাক্তার-নার্সসহ সবাইকে পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। তারপরও সবাই দিনরাত আক্রান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে।


এদিকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্র জানায়, নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজের আরটিপিসিআর ল্যাব, জিন এক্সপার্ট ও র‌্যাপিড টেস্টে  ৩৫৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে  ৮০ জনের করোনা পজেটিভ পাওয়া যায়। আক্রান্তের হার ২২ দশমিক ৫৯ শতাংশ।


নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় ২৪ জন, দাগনভূঞায় ১২ জন, ছাগলনাইয়ায় ২২ জন, পরশুরাম ১৭ জন, সোনাগাজীতে ২ জন ও ফুলগাজীতে ৩ জন রয়েছেন। জেলায় এ পর্যন্ত করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৪৯৫ জন।


তথ্যমতে, বর্তমানে জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ৮২ জন কোভিড পজিটিভ রোগী ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ৩২ জন, দাগনভূঞা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২৯ জন, ছাগলনাইয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১৬ জন, পরশুরাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। এছাড়া এক হাজার ৫৮৭ জন কোভিড পজিটিভ রোগী স্বাস্থ্য বিভাগের অধীন হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।


সূত্র আরো জানায়, এই জেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করে চট্টগ্রামের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশন ডিজিজেস (বিআইটিআইডি), চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালীর আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও মহিপাল বক্ষব্যাধি হাসপাতালের জীন এক্সপার্ট মেশিনে প্রেরণের পর মোট ৪১ হাজার ৪০৪ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। নতুন করে ১৪৩ জনসহ সুস্থ হয়েছেন ৭ হাজার ৬৭৬ জন।


উল্লেখ্য, গত বছরের ১৬ এপ্রিল জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের পশ্চিম মধুগ্রামে প্রথম এক যুবকের করোনা শনাক্ত হয়।




ভয়েস টিভি/ এএন
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/51508
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ