Printed on Tue Sep 28 2021 8:14:36 PM

পদ্মা সেতুতে বারবার কেন ফেরির ধাক্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয়ভিডিও সংবাদ
ফেরির ধাক্কা
ফেরির ধাক্কা
চার হাজার টনের জাহাজের ধাক্কা সহ্যের ক্ষমতা থাকায় ফেরির আঘাতে পদ্মা সেতুর ক্ষতির তেমন আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ। তারা বলছে, ১০ হাজার টনের 'ফ্রিকশন পেন্ডুলাম বিয়ারিং' থাকায় রিখটার স্কেলে ৯ মাত্রার ভূমিকম্প বা সমমানের কম্পন সহ্যক্ষমতা নির্মাণাধীন সেতুটির। তার পরও প্রশ্ন উঠেছে- পদ্মা সেতুর মতো জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় কেন বারবার ধাক্কা খাচ্ছে ফেরি। বড় জাহাজ নির্বিঘ্নে চললেও ৩৯ দিনে পাঁচবার ফেরি ধাক্কা খেয়েছে।

কয়েক দশকের পুরোনো ফেরির দুর্বল ইঞ্জিনগুলোর গতি বর্ষা মৌসুমে পদ্মা নদীর তীব্র স্রোতের কাছে অসহায়। সেতুর পিয়ার নির্মাণে নদীতে পানিপ্রবাহের পথ সংকুচিত হয়ে স্রোতের গতি আরও বেড়েছে। পিলারের আশপাশে স্রোত ও ঘূর্ণন থাকায় দুর্বল ইঞ্জিনের ফেরিগুলো বাতাস ও স্রোতের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারছে না। স্রোতের টানে পিলারের দিকে গিয়ে ধাক্কা খাচ্ছে। চালকদেরও দক্ষতার অভাব রয়েছে। অথচ ফেরির চেয়ে অনেক বেশি ওজনের তেল ও পণ্যবাহী জাহাজ প্রয়োজনীয় ক্ষমতার ইঞ্জিন দিয়ে নির্বিঘ্নে দুই পিয়ারের মাঝের ১৫০ মিটারের মধ্য দিয়ে চলাচল করছে।

পদ্মা সেতুর সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, ফেরির নিজস্ব ওজন এবং যাত্রীসহ গাড়ির ওজন মিলিয়ে ৬০০ থেকে হাজার টন। এগুলোর ধাক্কায় সেতুর ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা তেমন একটা নেই। পদ্মা সেতু যে নকশায় তৈরি হয়েছে, তাতে চার হাজার টন জাহাজের ধাক্কা সহনীয়।

ধাক্কা থেকে রক্ষায় সেতুর পিলারের চারদিকে 'বেড়া' নির্মাণ প্রয়োজন কিনা- এ প্রশ্নে প্রকল্প পরিচালক বলেছেন, বেড়া যেন না দিতে হয়, সেই জন্যই তো চার হাজার টন ধাক্কা সহনীয় পিলার তৈরি করা হয়েছে। আগামী ২০০ বছর নদীতে যে ক্ষমতার জাহাজ চলবে, সেটা মাথায় রেখেই নকশা করা হয়েছে।

গত ২০ জুলাই পদ্মা সেতুর ১৬ নম্বর পিলারে ধাক্কা খেয়ে অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের রো রো ফেরি শাহ মখদুমের তলা ফুটো হয়ে যায়। এর আগে ২ ও ১৬ জুলাই একই পিলারে ধাক্কা লাগে ফেরির। ২৩ জুলাই সেতুর ১৭ নম্বর পিলারে ধাক্কা খায় 'শাহজালাল' নামে আরেকটি ফেরি। এতে ফেরির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়, 'হাল-প্লেট' ভেঙে দেবে যায়। ফেরিতে থাকা গাড়িগুলোও একটির সঙ্গে আরেকটির ধাক্কায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সবশেষ গত সোমবার সেতুর ১০ নম্বর পিলারে 'বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর' নামে ফেরি ধাক্কা খায়। এতে আহত হন পাঁচজন।

ফেরির ধাক্কায় ১০ নম্বর পিয়ারের পাইল ক্যাপের সামান্য কিছু অংশের কংক্রিট খসে গেছে। এ ছাড়া সেতুর তেমন কোনো ক্ষতি হয়নি। পদ্মা সেতুর নিচ দিয়ে ফেরির চেয়ে অনেক বড় নৌযান, ট্যাঙ্কার জাহাজ ১২০০ থেকে ১৩০০ টন জ্বালানি নিয়ে বাঘাবাড়ী, আরিচা, নগরবাড়ী যায়। কিন্তু পিলারের সঙ্গে ধাক্কা লাগে না। দুই পিলারের মাঝে দূরত্ব প্রায় ৫০০ ফুট। ফেরির প্রশস্ততা ৫০ ফুটেরও কম। তার পরও কেন বারবার ধাক্কার ঘটনা ঘটছে। এই প্রশ্নই এখন বারবার ঘুরে ফিরে সামনে আসছে।


যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/50818
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ