Printed on Wed May 25 2022 8:13:09 PM

বইমেলার তারিখ নির্ধারণে প্রস্তাবনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
জাতীয়
বইমেলা
বইমেলা
করোনা পরিস্থিতিতে অমর একুশে গ্রন্থমেলার আয়োজনের দিনক্ষণ নিয়ে নতুন প্রস্তাবনা এনেছেন অন্যতম আয়োজক বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি ও বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি।

মঙ্গলবার দুপুরে বাংলা একাডেমিতে এক সভা শেষে দুই সমিতির নেতারা জানিয়েছেন, আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৭ মার্চ পর্যন্ত বইমেলা আয়োজন করতে চান তারা। বইমেলা আয়োজক কমিটির সদস্যসচিব জালাল আহমেদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সহ সভাপতি ও প্রকাশনা সংস্থা অন্যপ্রকাশের কর্ণধার মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা বলেছি, এক মাসই বইমেলা করতে হবে অর্থাৎ ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৭ মার্চ পর্যন্ত বইমেলা আয়োজনের প্রস্তাব জানিয়েছি। একাডেমি বলেন, এ ব্যাপারে বাংলা একাডেমি থেকে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হবে। সে সিদ্ধান্ত মোতাবেক, বইমেলার দিনক্ষণ চূড়ান্তভাবে নির্ধারিত হবে।’

নিয়ম অনুযায়ী চলতি বছর ১ ফেব্রুয়ারি থেকেই অমর একুশে বইমেলা আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছিল বাংলা একাডেমি। কিন্তু ওমিক্রনের প্রভাবে সারাদেশে রোগীর সংখ্যা ও মৃত্যুর সংখ্যা পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। এমন পরিস্থিতিতে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক বইমেলা ফেব্রুয়ারির ১৪ তারিখ পর্যন্ত স্থগিত রাখা হয়েছে।

১৫ ফেব্রুয়ারি থেকেই বইমেলা শুরু হচ্ছে বলে প্রকাশকদের একাংশ দাবি করেন। কিন্তু বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক মুহম্মদ নূরুল হুদা ও প্রকাশক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ স্পষ্টতই জানান, বইমেলা ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হবে এমন তথ্যের ভিত্তি নেই। বইমেলা আয়োজনের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে মন্ত্রিসভা। তারপর সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় দিনক্ষণ চূড়ান্ত করবে।

করোনা সংক্রমণের কারণে বইমেলা আয়োজন আপাতত স্থগিত রাখতে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরাও পরামর্শ দিয়েছেন।

কিন্তু প্রকাশকরা বলছেন, স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে অনুসরণ করা হবে বইমেলায়। এবারের বইমেলায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মেলা প্রাঙ্গণের আয়তনও বিস্তৃত করা হচ্ছে। বইমেলা থেকে যেন করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে না পারে, সেজন্য প্রকাশক, বই বিক্রেতা ও মেলার কর্মীদের টিকার আওতায় আনার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছে বাংলা একাডেমি। প্রকাশক সমিতি ও বিক্রেতা সমিতিও এই সিদ্ধান্তে সায় দিয়ে বলেছেন, তারাও সবাইকে টিকার আওতায় নিয়ে আসতে পদক্ষেপ নিয়েছেন।

গত বছর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলা সম্প্রসারণের পর থেকে মেলার আয়তনও ক্রমশ বেড়েছে। বইমেলায় অংশ নেয় ৪১০টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান, ইউনিট ছিল ৭২৩টি। প্যাভিলিয়ন ছিল ৩৪টি। শিশু চত্বরের আয়তনও বেড়েছিল।

ভয়েসটিভি/এমএম
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/65319
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ