Printed on Wed Dec 01 2021 3:51:48 PM

মিয়ানমারে বাংলাদেশি ট্রলার জব্দ, মুক্তিপণের দাবি

কক্সবাজার প্রতিনিধি
সারাদেশ
বাংলাদেশি ট্রলার
বাংলাদেশি ট্রলার
বঙ্গোপসাগরের মিয়ানমার সীমান্তে আংডাং কুলুং এলাকা থেকে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) সদস্যরা চার বাংলাদেশি ফিশিং ট্রলার ও ১৮-২০ জন মাঝিমাল্লা আটক করেছে।

গত ৮ নভেম্বর সোমবার বেলা ১১ টার সময় সেন্টমার্টিন দ্বীপের দক্ষিণে মিয়ানমারের সিটওয়ে (আকিয়াব) শহরের মংডু এলাকার আংডাং-কুলুং উপকূল থেকে ধরে নিয়ে যায়।

৫ নভেম্বর শুক্রবার সকালে টেকনাফ পৌর সভার কায়ুকখালী ঘাট দিয়ে এসব ফিসিং ট্রলারগুলো বঙ্গোপসাগরে মাছ শিকারে রওয়ানা দেয়। এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন সেখানে আটক নৌকার মালিক ও মাঝি টেকনাফ পৌর সভা ১ নং ওয়ার্ড নাইট্যং পাড়ার বাসিন্দা ফজল করিম ওরফ নাতির ছেলে নুরুল ইসলাম।

তিনি জানান, ‘অন্যান্য দিনের মত গত ৫ নভেম্বর বেশ কয়েকটি ফিশিং ট্টলারের মত আমার বাবা নিজ ট্রলার নিয়ে মাছ শিকারে বের হয়। কিন্তু গত সোমবার ৮ নভেম্বর দুপুরে জানা যায় বঙ্গোপসাগরের মিয়ানমার সীমান্তে আংডাং কুলুং এলাকা থেকে বিজিপি সদস্যরা চারটি বাংলাদেশি ফিশিং ট্রলার আটক করে রাখে।’

ট্রলার হলো হচ্ছেন টেকনাফ পৌর সভার নাইট্যং পাড়ার ফজল করিম, ৭ নং ওয়ার্ড চৌধুরী পাড়ার সালমান ও ৯ নং ওয়ার্ড দক্ষিণ জালিয়া পাড়ার মো. ছৈয়দ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ফজল করিম নিজে মাঝি হিসেবে ৮ জন মাঝিমাল্লা নিয়ে সাগরে গেলেও সালমানের মালিকানাধীন নৌকার মাঝি মোবারক, মো. ছৈয়দের মালিকানাধীন নৌকার মাঝি ছৈয়দ আলমসহ তিনটি ট্রলারের ১৮-২০ জন মাঝিমাল্লা গত সোমবার ৮ নভেম্বর সকাল থেকে আটকা রয়েছে মিয়ানমার সীমান্ত পুলিশের হাতে।

একটি সুত্র মতে জানা গেছে, প্রতি ট্রলারে দু’লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে বিজিপি। এ নিয়ে ফিশিং ট্রলার সংশ্লিষ্টরা কেউ মুখ খুলছে না। বিষয়টি প্রশাসনকেও অবহিত করা হয়নি।

এ বিষয়ে কোস্ট গার্ডের টেকনাফ স্টেশনে কেউ খবর দেয়নি বলে সংশ্লিষ্ট একটি সুত্র জানান। তবে স্টেশন কমান্ডার লে. কমান্ডার নাইম-এর মোবাইল সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি) টেকনাফ ২ ব্যাটালিয়ন উপ-পরিচালক লে. এম মোহতাসিম বিল্লাহ শাকিল এ ব্যাপারে ‘তথ্য সংগ্রহের চেষ্টা চলছে’ বলে জানিয়েছেন।

এর আগেও চলতি সপ্তাহের প্রথম দিকে টেকনাফ পৌর সভার ৭ নং ওয়ার্ড চৌধুরী পাড়ার নুরুল বশর মিজ্জির ছেলে মো: রফিকের ফিশিং ট্রলারসহ আরো তিনটি ট্রলার আটকে রাখে। তাদের কাছ থেকে জোরপূর্বক মাছ কেড়ে নিয়ে ছেড়ে দেয় একই পয়েন্ট থেকে।

ভয়েসটিভি/এমএম 
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/57986
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ