Printed on Tue Sep 28 2021 8:50:51 PM

বাদল রায়ের পরিবারকে ফ্ল্যাট ও ২৫ লাখ টাকা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
খেলার খবর
বাদল রায়ের পরিবারকে ফ্ল্যাট ও ২৫ লাখ টাকা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
বাদল রায়ের পরিবারকে ফ্ল্যাট ও ২৫ লাখ টাকা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
প্রয়াত তারকা ফুটবলার বাদল রায়ের পরিবারকে একটি ফ্ল্যাট ও ২৫ লাখ টাকা উপহার দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী কিছুদিনের মধ্যে এই ফ্ল্যাট ও অর্থ বাদল রায়ের পরিবারকে বুঝিয়ে দেওয়া হবে। বাদল রায়ের দীর্ঘদিনের বন্ধু সাবেক তারকা ফুটবলার আবদুল গাফফার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এ বিষয়ে বাদল রায়ের স্ত্রী মাধুরী রায় বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ফোন করে জানানো হয়েছে, আমাদের নামে একটা ফ্ল্যাট বরাদ্দ হয়েছে। এর বেশি বিস্তারিত জানি না। শুনেছি, সাথে অর্থ বরাদ্দও আছে।

২০১৭ সালে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের পর নানা রোগে আক্রান্ত ছিলেন বাদল রায়। সর্বশেষ করোনা এবং লিভার ক্যান্সারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মারা যান বাদল। স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গত বছর ২২ নভেম্বর দুনিয়া ত্যাগ করেন ক্রীড়াঙ্গনে সবার প্রিয় বাদল রায়।

বাদল রায়ের একমাত্র মেয়ে গঙ্গোত্রী রায় (বৃষ্টি) অস্ট্রেলিয়ায় থাকেন। সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী তার বাবার প্রতি ভালোবেসে তাদের পরিবারের পাশে পুনরায় দাঁড়ানোয় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। তিনি  বলেছেন, মাননীয় প্রধনামন্ত্রীকে আমরা আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। আমার বাবার প্রতি তাঁর অসম্ভব ভালোবাসা আমরা সবসময় অনুভব করি। বাবা সারাজীবন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্ব অনুসরণ করে চলেছেন। ২০১৭ সালে ব্রেন স্ট্রোকের সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে সিঙ্গাপুরে বাবার চিকিৎসা সম্পন্ন হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর উপহার প্রসঙ্গে বাদল রায়ের স্ত্রী মাধুরী রায় বলেন, আমি ও আমার পরিবার তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ। তিনি বাদলের জন্য যা করেছেন এবং এখন করলেন তাতে প্রমাণ হলো, তিনি আমাদের মাথার ওপরই আছেন। তিনি যে উপহার দিচ্ছেন, এটা আমাদের জন্য বিরাট সম্মানের।

প্রধানমন্ত্রীর এ উপহার পেতে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদেরও ধন্যবাদ জানান বাদল রায়ের স্ত্রী। তিনি বলেন, সহায়তার জন্য আবেদন করা হয়েছিল, তা আমি জানতাম না। একদিন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ফোন করে বলা হলো, একটি আবেদন জমা পড়েছে। কিন্তু সেখানে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র নেই। আমাকে সেটা পাঠিয়ে দিতে বলেছিল। আমি দিয়েছি। কয়েক দিন পর আবার ফোন করে জানানো হয়, বরাদ্দ অনুমোদন হওয়ার কথা। যারা উদ্যোগ নিয়েছিলেন, তাদের জানাই ধন্যবাদ।

বাদল রায়ের পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর এই সাহায্যের জন্য কার্যকর ভূমিকা রেখেছেন তার দীর্ঘদিনের বন্ধু সাবেক তারকা ফুটবলার আবদুল গাফফার। ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক গাফফার এই প্রসঙ্গে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সব সময় ক্রীড়াবিদদের পাশে থাকেন। বাদল তার খুবই প্রিয় একজন ছিলেন। হারুন ভাই (বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক) বাদলের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য উদ্যোগ নেন। পরবর্তীতে আমি বিষয়টি সমন্বয় করেছি।

বাদল রায় বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের বিশেষ এক নাম। সত্তর-আশির দশকে তারকা ফুটবলার। ১৯৮১ সালে ডাকসু নির্বাচনে ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে ক্রীড়া সম্পাদক নির্বাচিত হন। খেলা ছাড়ার পর ক্রীড়া সংগঠন ও রাজনীতির সঙ্গেই ছিলেন। ১৯৯১ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে তার নিজ জেলা কুমিল্লা থেকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া কমিটির সহসম্পাদক ছিলেন দীর্ঘদিন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসঙ্গী ছিলেন বেশ কয়েকবার। ক্রীড়াঙ্গনের সাথে বাদলের ছিল নাড়ির সম্পর্ক। ফুটবল ফেডারেশন ছাড়াও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ, বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশন, বঙ্গবন্ধু ক্রীড়া কল্যাণসেবী ফাউন্ডেশন, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন কমিটিতে তিনি ছিলেন। ক্রীড়াঙ্গনে তিনি ছিলেন বলিষ্ঠ কন্ঠস্বর।

বাদল রায় ছাড়া আরও কয়েকজন ফুটবলার ও সংগঠককেও অর্থসহায়তা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর মধ্যে স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের সুভাস সাহাকে ৩০ লাখ (স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের সদস্য হিসেবে ২৫ লাখ ও চিকিৎসা বাবদ ৫ লাখ), জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক সহিদ উদ্দিন সেলিমকে চিকিৎসার জন্য ১০ লাখ, সাবেক ফুটবলার আজমতকে ১০ লাখ এবং সংগঠক সাব্বির হোসেনকে ৫ লাখ টাকা সহায়তা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়ুন : পিকে হালদারের দুই ফ্ল্যাট ও ৬ একর জমি ক্রোক

ভয়েস টিভি/ এএন
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/52069
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ