Printed on Sun May 22 2022 2:25:00 PM

বিয়ের পর পরিবর্তন আনতে হবে যে অভ্যাসগুলোতে

নিজস্ব প্রতিবেদক
লাইফস্টাইল
বিয়ের পর পরিবর্তন
বিয়ের পর পরিবর্তন
ছোটবেলা থেকে আস্তে আস্তে আমাদের মধ্যে নিজের অজান্তে গড়ে ওঠে অনেক অভ্যাস অথবা বদভ্যাস, যা হয়তোবা সব সময় বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে দেখি না।

তবে এসব অভ্যাস বিয়ের পরও চালিয়ে গেলে বিপদ। এতে সঙ্গীর সঙ্গে আপনার বোঝাপড়ায় ঝামেলা তৈরি হবে।

অস্বাস্থ্যকর এসব অভ্যাস অনেক সময় বিচ্ছেদের কারণও হয়ে ওঠে।

চলুন জেনে নিই তেমন কিছু অভ্যাস।

বিয়ের আগে যখন বাসায় ফিরতেন, তখন দরজা খোলার পরই হয়তো সোজা নিজের ঘরে চলে যেতেন। কিন্তু এখন সেটা চালিয়ে যাওয়া ঠিক হবে না।

বিয়ের পর বাসার দরজা যদি আপনার স্ত্রী খুলে দেন, তাহলে তাঁকে কুশলাদি জিজ্ঞাসা করুন।

দরজা খোলার পরই একটা মিষ্টিহাসি দিয়ে তাঁকে জড়িয়েও ধরতে পারেন। এতে নিজেদের মধ্যে হৃদ্যতা বাড়বে।

কথা বলার সময় আগে হয়তো কারও দিকে তাকাতেন না।

তবে বিয়ের পর এ বদভ্যাস পাল্টে ফেলুন। দিনের পর দিন সঙ্গীর মুখের দিকে না তাকিয়ে কথা বলে গেলে সে বিরক্ত হবে।

হয়তো সারা দিন একসঙ্গে আছেন, তাই হয়তো এ দিকে ঠিকমতো খেয়াল করেন না।

যত গুরুত্বপূর্ণ কাজের মধ্যেই থাকেন না কেন, কথা বলার সময় স্ত্রী বা স্বামীর দিকে তাকিয়ে কথা বলুন। এতে সে মনে করবে, আপনি তাঁকে গুরুত্ব দিচ্ছেন, দুজনের মধ্যে ভালোবাসাও বাড়বে।

উদ্‌যাপনের অভ্যাস নেই! তাহলে তো ঘোর বিপদে পড়তে যাচ্ছেন আপনি। জীবনের ছোট-বড় যেকোনো সাফল্য বা বিশেষ দিন উদ্‌যাপনের অভ্যাস করুন।

বিয়ের পর এ অভ্যাস আপনার দাম্পত্য জীবন সুখের হতে সাহায্য করবে।

জন্মদিন, বিবাহবার্ষিকী, শুভ সংবাদ, সাফল্য, পদোন্নতির মতো বিষয়গুলোতে একসঙ্গে উদ্‌যাপনের অভ্যাস করুন।

অন্যের কাছে সঙ্গী সম্পর্কে নেতিবাচক কথা বলবেন না।

বিয়ের পর এ অভ্যাস আপনাকে নিয়ে যেতে পারে বিচ্ছেদের দিকে।

আবার এটাও সত্য যে আমরা নিজেদের নানা বিষয় বন্ধুদের সঙ্গে আলোচনা করে একটা সিদ্ধান্তে আসার চেষ্টা করি।

সঙ্গীকে নিয়ে যদি কারও সঙ্গে আলোচনা করতেই হয়, সেখানে তাঁর সম্পর্কে অসম্মানজনক শব্দ ব্যবহার করবেন না।

সন্তানদের সামনে সঙ্গীর প্রতি কেমন ব্যবহার করব, সে বিষয়ে অনেক সময় আমরা ভুলে যাই।

মনে রাখবেন, সন্তানদের সামনে মা–বাবা একজন আরেকজনকে অসম্মান করলে সেই পরিবারে বন্ধন দৃঢ় হওয়া কঠিন।

তাই সন্তানদের সামনে নিজেদের কোনো বিষয় নিয়ে অন্যজনকে হেয় করে কথা বলা যাবে না।

সঙ্গীকে স্পর্শ করেন কম? এটাও একটা অস্বাস্থ্যকর অভ্যাস। বিয়ের পর স্বামী-স্ত্রী একজন আরেকজনকে দিনের পর দিন না ছুঁয়ে থাকলে দাম্পত্যের জন্য সেটা মোটেও সুখকর নয়।

বরং আপনার একটু খুনসুটি, দুষ্টুমি, কথা বলতে বলতে একটু হাত ধরা—এসব আপনার সঙ্গী আশা করে।

স্বামী ও স্ত্রী দুজনের বেলাতেই এটা সত্য।

কথা বলার সময় থামিয়ে দেওয়ার অভ্যাস খুব খারাপ। আপনার সঙ্গী যখন কথা বলছে, মাঝপথে তাঁকে থামিয়ে দেবেন না।

তাঁকে পুরো কথা শেষ করতে দিন। এরপর নিজের বক্তব্য তুলে ধরুন।
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/65870
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ