Printed on Wed Dec 01 2021 4:17:16 PM

রাস্তায় মনিটরিং নেই, ভাড়া নৈরাজ্যে চলছে সিটিং সার্ভিস

নিজস্ব প্রতিবেদক
সারাদেশ
ভাড়া নৈরাজ্যে
ভাড়া নৈরাজ্যে
সরকারের সিদ্ধান্ত ও মালিক সমিতির নেতাদের আদেশ থোড়াই কেয়ার করছেন বাস মালিক ও চালকরা। ভ্রূক্ষেপ নেই সড়ক পরিবহনমন্ত্রীর হুঙ্কারেও। রাস্তায় চলছে ভাড়া নৈরাজ্য। সিটিং সার্ভিস, গেটলক, ওয়েবিল সিস্টেমও বন্ধ হয়নি। বাসের গায়ে ‘ডিজেল চালিত’ লেখা স্টিকার চোখে পড়লেও এখনও দেখা যায়নি একটি ‘সিএনজি চালিত’ স্টিকার।

কিছু গাড়িতে ভাড়ার নতুন চার্ট লাগানো হলেও তা চালকের মাথার ওপরে। যাত্রীদের দেখার সুযোগ নেই। এমনকি চার্ট ছাড়াও রাজধানীতে চলছে বাস। বিআরটিএ, মালিক ও শ্রমিকের সমন্বয়ে মনিটরিং টিমগুলো রাস্তার পাশে চা-সিঙ্গাড়া খেয়ে কাটাচ্ছেন সময়।

জানা গেছে, মালিক সমিতির বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত রবিবার (১৪ নভেম্বর) থেকে রাজধানীতে সিটিং সার্ভিস ও ওয়েবিল সিস্টেমে কোনও গণপরিবহন চলাচল করার কথা নয়। তারপরও এসব বন্ধ হয়নি। এর মধ্য দিয়ে যাত্রী হয়রানিসহ অতিরিক্ত ভাড়া আদায় চলছে। পরিবহন মালিক সমিতির দেওয়া তিনদিনের ডেডলাইন শেষ হয়েছে শনিবার (১৩ নভেম্বর)।

জানা গেছে, গত বুধবার (১০ নভেম্বর) ঢাকা সড়ক পরিবহন সমিতির কার্যালয়ে বাস ভাড়া বাড়ানো পরবর্তী অবস্থা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় সিটিং সার্ভিস এবং গেইট লক সার্ভিস থাকবে না বলে জানিয়েছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব এনায়েত উল্যাহ। তিনি আরও জানিয়েছেন, রাজধানীতে ওয়েবিল সিস্টেমেও বাস চলবে না।

জানা গেছে, সরকারি সিদ্ধান্ত অমান্য করে বাস মালিকরা লোকাল বাসগুলো চালকদের নির্দিষ্ট হারে জমা দেওয়ার টার্গেট দিয়ে দিয়েছেন। এটা দৈনিক ইজারার মতোই। মালিকের হাতে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ তুলে দেওয়ার পর যা থাকবে সেটাই নেবেন চালক ও হেলপার। মূলত এ কারণেই রাজধানীতে চলাচলকারী গণপরিবহনের ভাড়া নৈরাজ্য বন্ধ করা যাচ্ছে না।

রাজধানীর রায়েরবাগ ও শনিরআখড়া এলাকায় দেখা গেছে চেয়ার পেতে গোল হয়ে বসে আড্ডা দিচ্ছেন বাস মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতারা। দূর থেকে এ দৃশ্য দেখে দরজা লাগিয়ে অনায়াসে পাশ কাটিয়ে চলে যাচ্ছে চিটাগাং রোড, সাইনবোর্ড ও নারায়ণগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা রজনীগন্ধা, মনজিল, ঠিকানা, মৌমিতা, নীলাচল, মেঘলা, শ্রাবন, হিমালয়, শীতল, পরিবহনের গাড়িগুলো।

প্রতিটি গাড়িতেই অতিরিক্ত ভাড়া আদায় হচ্ছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের। রজনীগন্ধা ও মনজিল পরিবহনে চলছে ওয়েবিল। ঠিকানা, মৌমিতায় লাগানো হয়নি ভাড়ার চার্ট। মেঘলা ও রজনীগন্ধা বাসে চালকের মাথার ওপর চার্ট টানানো হলেও তা যাত্রীদের দেখার সুযোগ নেই।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রায়েরবাগ থেকে রাজধানীর জিরোপয়েন্টের (জিপিও) দূরত্ব ৬ কিলোমিটার। নতুন ভাড়া হওয়ার কথা ১২ টাকা ৯০ পয়সা। নেওয়া হচ্ছে ২৫ টাকা। রজনীগন্ধা, মনজিল, মেঘলা, শ্রাবন, হিমালয় বাসচালক ও কন্ড্রাকটররা বলছেন—আগে ভাড়া ছিল ২০ টাকা, এর সঙ্গে বেড়েছে ৫ টাকা। এভাবেই ওয়েবিলের মাধ্যমে প্রতি পয়েন্ট ৫ টাকা বাড়ানো হয়েছে। এসব বাস আটকানোও হচ্ছে না। আটকানো হচ্ছে নারায়গঞ্জ থেকে গুলিস্থানের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা বিআরটিসির দোতলা লাল বাসগুলো। আগের ৩০ টাকার সঙ্গে ১০ টাকা বাড়িয়ে ৪০ টাকা ভাড়া আদায় করার অভিযোগে এসব বাসগুলোকে জরিমানা করছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জানতে চাইলে বিআরটিএ’র ভ্রাম্যমাণ আদালত ১০-এর দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছেন, এখন লালগাড়ি ধরা হচ্ছে। পরে অন্য বাস ধরা হবে।

তবে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, এখানে মালিক-শ্রমিকের সমন্বয়ে গঠিত মনিটরিং টিমের কার্যক্রম এভাবেই চলছে। অপরদিকে সমন্বয় কমিটির সদস্য সোহরাব হোসেন জানিয়েছেন, আমরা মাঠে কাজ করছি। নতুন ভাড়া কার্যকর করতে সরকারকে সহযোগিতা করছি।

আরও পড়ুন : রাজধানীতে আজ থেকে বন্ধ হচ্ছে সিটিং সার্ভিস

ডিজেলের দাম পুনর্নির্ধারণের কারণে গত ৭ নভেম্বর ঢাকায় ডিজেল চালিত বড় বাসে প্রতি কিলোমিটারের ভাড়া ২ টাকা ১৫ পয়সা আর মিনিবাসে ২ টাকা ৫ পয়সা নির্ধারণ করে দেয় বিআরটিএ। বড় বাসে সর্বনিম্ন ভাড়া ঠিক হয় ১০ টাকা, মিনিবাসে ৮ টাকা। যেসব বাস সিএনজিতে চলে, সেগুলোতে ভাড়া বাড়বে না।

রাজধানীতে প্রতি কিলোমিটার রাস্তায় বাস ভাড়া ২ টাকা ১৫ পয়সা নির্ধারণ করা হলেও আদায় হচ্ছে ৪ টাকারও বেশি।

এ প্রসঙ্গে বাসমালিকদের সংগঠন সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েতউল্যাহ জানিয়েছেন, রাজধানীতে কোনও সিটিং সার্ভিস ও ওয়েবিল থাকবে না। আমরা মনিটরিং করছি।

এ বিষয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বারবারই বলছেন, নির্ধারিত ভাড়ার অতিরিক্ত আদায় করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

ভয়েসটিভি/এমএম
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/58708
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ