Printed on Sat May 28 2022 8:57:52 PM

বিচারক হিসেবে প্রতি পর্বে মাধুরীর পারিশ্রমিক ১ কোটি

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদনভিডিও সংবাদ
মাধুরী দীক্ষিত
মাধুরী দীক্ষিত
কাজের জন্যে দরজায় দরজায় ঘুরতে থাকা মাধুরীর আজ এপিসোড প্রতি সম্মানী পান ১ কোটি।মাধুরী দীক্ষিত নিজেই ইন্ডাস্ট্রিতে একটি ব্রান্ড।বলিউডের সুপারস্টার মাধুরী দীক্ষিত।

যিনি অভিনয়, নাচ ও সৌন্দর্য দিয়ে মুগ্ধ করে রেখেছেন এখনও। তিনি প্রজন্মের পর প্রজন্ম মাতিয়ে রেখেছেন তার অভিনয় দিয়ে। ইদানিং নাচের রিয়েলিটি শো-র বিচারক হিসেবেও দেখা গিয়েছে বিখ্যাত এই অভিনেত্রীকে।

এবার পা রেখেছেন ওটিটির দুনিয়াতেও।

আসছে মাধুরী অভিনীত প্রথম ওয়েব সিরিজ দ্য ফেম গেম। যদিও তার নাম আগে ছিলো ‘ফাইন্ডিং অনামিকা’।

নেটফ্লিক্সে ২৫ ফেব্রুয়ারি প্রিমিয়ার হবে সিরিজিটি।করণ জোহর তার টুইটারে বলেন সিরিজে সুপারস্টার অনামিকা আনন্দের ভূমিকায় থাকছেন মাধুরী। আচমকাই উধাও হয়ে যায় অনামিকা।

পুলিশ ও নিকটজনেরা তার খোঁজ করতে গেলে বেরিয়ে আসে নানা তথ্য। সিরিজে দেখা যাবে কিংবদন্তী এই অভিনেত্রীর জীবনের বহু অজানা যন্ত্রণার কাহিনী।

এই লাস্যময়ী অভিনেত্রীর এই পর্যন্ত আসতে কম কাঠখোর পোহাতে হয়নি। এমনও দিন ছিল যখন মাধুরীকে দরজায় দরজায় ঘুরতে হয়েছে একটা সুযোগের জন্য।এক বার তো সানি দেওলের সঙ্গে অভিনয় করবেন বলে মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন তিনি।

সানির সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করবেন বলে চেষ্টার কোনও ত্রুটি রাখেননি মাধুরী।

কেরিয়ারের শুরুতে মাধুরীকে বেশিরভাগ সময়েই সহ-নায়িকা বা পার্শ্বনায়িকার ভূমিকায় অভিনয় করতে হত।

প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য দয়াবান ছবিতে তাঁকে বিনোদ খান্নার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করতে হয়েছিল। পরে এই নিয়ে আক্ষেপও করেছিলেন মাধুরী।

মাধরী উপহার দিয়েছেন সাজন, হাম আপকে হ্যায় কৌন, দিল তো পাগল হ্যায়, দেবদাস’এর মতো অজস্র ব্লকবাস্টার সিনেমা।

কেরিয়ার শুরুর সময়ে মাধুরীর সঙ্গে আলাপ হয়েছিল রাকেশ নাথের। সে সময় রাকেশ ছিলেন অনিল কাপূরের ম্যানেজার।

রাকেশের দায়িত্ব ছিল মাধুরী যাতে ভাল ছবিতে সুযোগ পান, সেদিকে খেয়াল রাখা।প্রথম সারির নায়কদের সঙ্গে অভিনয়ের সুযোগ, তারকাখচিত ছবিতেও ভাল ভূমিকায় অভিনয়ের সুযোগ এ সব মাধুরীর জন্য নিশ্চিত করাই ছিল রাকেশের মূল কাজ।

১৯৮৮ সালে মুক্তি পেয়েছিল মাধুরী অভিনীত তেজাব।

বক্সঅফিসে এই ছবির সাফল্যের জেরে অনেকটাই বেড়ে গিয়েছিল মাধুরীর জনপ্রিয়তার পারদ। তার প্রভাব পড়েছিল ত্রিদেব ছবির শ্যুটিংয়েও।

ছবির স্বার্থেই প্রযোজকরা মাধুরীর দৃশ্য বাড়িয়ে দিয়েছিলেন।রাকেশের বহু অনুরোধে অবশেষে ত্রিদেব সিনেমায় মাধুরীকে নিতে রাজি হন প্রযোজক।

১৯৮৯ সালে ত্রিদেব ছবিতে সানির বিপরীতে নায়িকা হন মাধুরী। তবে যত দিনে ত্রিদেব এর শ্যুটিং শুরু হয়েছিল,তত দিনে সিনেমাটা বেশ পাল্টে গিয়েছিল।

এক সময় সুযোগের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকা মাধুরী এ বার নিজেই সুযোগ প্রত্যাখ্যান করতে লাগলেন। নবাগতা মাধুরী ধীরে ধীরে পৌঁছে গেলেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে।

অগনিত পুরুষ্কারের ঝুলি রয়েছে তার ভান্ডারে। সিনেমার পাশাপাশি যে কোনো ড্যান্স রিয়েল্যাটি শোতে প্রতি এপিসোড১ কোটি করে নেন এই বলিউড হার্টথ্রব।
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/65792
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ