Printed on Tue Jan 25 2022 4:11:41 PM

মিষ্টি হাসির কীর্তি সুরেশের কতো গুণ!

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদনভিডিও সংবাদ
মিষ্টি হাসির
মিষ্টি হাসির
‘কণার হাতে বীণা, সে বীণা বাজায়, তার অনেক গুণ...’; শৈশবে বাংলা বইয়ের এই কবিতা পড়া হয়নি এমন গুণীর দেখা মেলে কালেভদ্রে। সেই কণার মতোই যেন গুণী কীর্তি সুরেশ। ভারতের দক্ষিণী সিনেমা দেখেন, অথচ তাকে পছন্দ করেন না, এমন দর্শক খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। মায়াবী চেহারার এই অভিনেত্রী যেমন রূপের মুগ্ধতা ছড়ান, তেমনি তার অভিনয়ের যাদুতে মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখেন সবাইকে। দক্ষিণি এই অভিনেত্রী অভিনয়ের খাতিরে নাচ, গান তো শিখেছেনই; ওদিকে পড়ালেখা করেছেন ফ্যাশন ডিজাইনে। এবার বীণা বাজিয়ে দেখালেন। তাতে মুগ্ধ প্রিয়দর্শনের মতো পরিচালক।

বড় ক্যানভাসের ছবি ‘মারাক্কার: লায়ন অব দ্য অ্যারাবিয়ান সি’। ছবিটি ১৭ ডিসেম্বর আমাজন প্রাইম ভিডিওতে মুক্তি পেয়েছে। এর আগে সিনেমা হলেও মুক্তি পেয়েছিল। তখন মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে ছবিটি।

সমালোচকদের কথা, বড় ক্যানভাস, মোহনলালের মতো শক্তিশালী অভিনেতা থাকলেও ছবির গল্পে টান টান উত্তেজনা ছিল না। তবে ছবির গান নিয়ে বেশ আলোচনা হয়েছে।

এই ছবিতে অভিনয় করেছেন কীর্তি। ছবির একটি গান ‘নিয়ে এন থায়ে’তে দেখা গেছে কীর্তিকে। গানটি সংগীতপ্রেমীদের ভালো লেগেছে। আলোচিত হয়েছে গানে তার অভিনয়। বিশেষ করে তার বীণা বাদন মুগ্ধ করেছে ভক্তদের। শুধু তাই নয়, বীণা বাদন নিয়ে যে অবাক হয়েছিলেন স্বয়ং ছবির পরিচালক প্রিয়দর্শনও, সে কথাই সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানালেন।

প্রিয়দর্শন বলেন, ‘কীর্তি সুন্দর বীণা বাজিয়ে আমাকে অবাক করে দেয়। সে ভায়োলিন বাজায়, অনেকেই সেটা জানে না। যেহেতু তার মধ্যে সংগীত আছে, সে এই গান গাওয়ার চরিত্রে দারুণভাবে অভিনয় করেছে। কীর্তি সুরেশ এমনভাবে বীণা বাজিয়েছে যে একটা সিঙ্গেল নোটও ভুল করেনি। এটা আমাকে অবাক করেছে। সে ছিল একদম সাবলীল। আমি অবশ্যই বলতে পারি, বীণা বাজানোর সঙ্গে সঙ্গে গানও গাওয়া সহজ কাজ নয়। কিন্তু সে এটা করে আমাকে অবাক করে দিয়েছে।’

‘নিয়ে এন থায়ে’ গানটির সংগীত পরিচালক ছিলেন রনি রাফায়েল। লিখেছেন হরি নারায়ণ। হরি শঙ্কর ও রেশমা রাঘবেন্দ্র গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন। ছবির গল্প মুসলিম বীর কুঞ্জলি মারাক্কারকে নিয়ে। জামোরিনের রাজা সোমার্থি কুঞ্জলি তাঁকে নৌবাহিনীর প্রধান করেন। কালিকট বন্দরে ব্যবসায়ীর ছদ্মবেশে আসা পর্তুগিজ জলদস্যুদের রুখে দেওয়ার গল্প এই ছবির কাহিনি। মারাক্কারের ভূমিকায় দেখা গেছে মোহনলালকে।

১৯৯২ সালের ১৭ অক্টোবর ভারতের তামিলনাডুর মাদরাজে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার বাবা জি সুরেশ কুমার মালায়লাম সিনেমার একজন প্রযোজক এবং তার মা মিনাকা তামিল অভিনেত্রী।

সিনে পরিবারে জন্ম কীর্তি সুরেশের, তাই তার এই ভুবনে আসাটা অনেকটা অনুমেয়। তবে তিনি ডিজাইনের ওপর ক্যারিয়ার গড়তে চেয়েছিলেন। এছাড়া ভায়োলিন নিয়েও ছিল তার অনেক চিন্তা-ভাবনা। তবে শেষ পর্যন্ত অভিনয়েই তিনি জয় করলেন সবার মন।
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/63146
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ