Printed on Thu Oct 21 2021 10:34:06 AM

শাহরুখেরে ছেলের মাদক কেনা হয় বিটকয়েনে

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন
বিটকয়েনে
বিটকয়েনে
শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান গ্রেপ্তাররে পর রহস্য উন্মোচনে ব্যস্ত মাদক নিয়ন্ত্রক সংস্থা (নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো বা এনসিবি)। তদন্ত যত এগোচ্ছে, ততই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসছে এনসিবি-র তদন্তকারীদের হাতে।

তারা জানতে পেরেছেন, কর্ডিলিয়া প্রমোদতরীতে শনিবার রাতে যে মাদক আনা হয়েছিল, তা ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করে কেনা হয় বিটকয়েনের মাধ্যমে। সোমবারই শ্রেয়স নায়ার নামে এক মাদক পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করে এনসিবি।

তদন্তকারীদের দাবি, ধৃত ব্যক্তি জেরায় জানিয়েছেন প্রমোদতরীতে ওই রাতে ডার্ক ওয়েবের মাধ্যমে মাদকের অর্ডার পেয়েছিলেন। তার জন্য তাকে কোনো নগদ টাকা দেয়া হয়নি। পুরো টাকাটাই মেটানো হয়েছিল ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার করে। আর এখানেই সন্দেহ আরো গাঢ় হয়েছে এনসিবি-র তদন্তকারীদের।

প্রশ্ন উঠছে, তা হলে কি এবার ঘুরপথে মাদকের লেনদেন এবং পাওনা মেটানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। যাতে সহজে বিভিন্ন তদন্তকারী সংস্থার এড়ানো যায়? শ্রেয়সকে জেরা তা জানার চেষ্টা চলছে বলে এনসিবি সূত্রে খবর। ইতোমধ্যেই এই ঘটনায় শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ানসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে এনসিবি। আগামী ৭ অক্টোবর পর্যন্ত তাদের নিজেদের হেফাজতে রাখবে এনসিবি।

তবে আরিয়ানকে ওই পার্টিতে কে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন, তার খোঁজ চালাচ্ছেন তদন্তকারীরা। পাশাপাশি, আরিয়ান এবং তার বন্ধুদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া মাদকের টাকা কে বা কারা দিয়েছিলো, তারও যোগসূত্র খুঁজজেন তদন্তকারীরা। শনিবার রাতে যখন প্রমোদতরীতে হানা দেয় এনসিবি, সে সময় আরিয়ানের লেন্স রাখার বাক্স থেকে উদ্ধার হয় মাদক। এছাড়া তার বান্ধবীর স্যানিটারি প্যাড এবং অন্তর্বাস থেকেও উদ্ধার হয় মাদক।

এনসিবি সূত্রে খবর, স্যানিটারি প্যাড, ওষুধের বাক্স, জামাকাপড়, অন্তর্বাসের সেলাইয়ের মধ্যেও রাখা ছিল মাদক। খুব সহজে যাতে মাদকের হদিশ না পাওয়া যায়, মূলত সেই কারণে সেগুলিকে এমন সব জায়গায় লুকিয়ে রাখা হয়েছিল বলে অনুমান তদন্তকারীদের।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/55031
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ