Printed on Wed Dec 01 2021 3:04:46 PM

সিরিজ বোমা হামলার ১৫ বছর, নিষ্পত্তি হয়নি ৪৭ মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
অপরাধ
সিরিজ বোমা হামলার
সিরিজ বোমা হামলার
২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট একযোগে দেশের ৬৩ জেলা বোমার বিকট আওয়াজে কেঁপে ওঠে। দুইজন নিহতসহ আহত হয় শতাধিক মানুষ। আহতদের আর্তচিৎকারে ভারী হয়ে হয়ে ওঠে গোটা বাংলাদেশ। সেই সিরিজ বোমা হামলার ১৫ বছর পূর্তি আজ। তবে সে ঘটনায় আহতরা আজও বয়ে বেড়াচ্ছে সেদিনের ক্ষতচিহ্ন আর ভয়ার্ত স্মৃতি।

সিরিজ বোমা হামলার ওই ঘটনার পর সারাদেশে ১৫৯টি মামলা দায়ের করা হয়। তবে এই ঘটনার ১৫ বছরে ৯৬টি মামলার নিষ্পত্তি হলেও এখনও বিচারাধীন রয়েছে ৪৭টি মামলা।

এ হামলা চালায় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি)। দেশের ৫০০ স্পটে এই সিরিজ বোমা হামলায় দু’জন নিহত এবং অন্তত ১০৪ জন আহত হন।

পুলিশ সদর দফতরের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় সারাদেশে ১৫৯টি মামলার মধ্যে ডিএমপিতে ১৮টি, সিএমপিতে ৮টি, আরএমপিতে ৪টি, কেএমপিতে ৩টি, বিএমপিতে ১২টি, এসএমপিতে ১০টি, ঢাকা রেঞ্জে ২৩টি, চট্টগ্রাম রেঞ্জে ১১টি, রাজশাহী রেঞ্জে ৭টি, খুলনা রেঞ্জে ২৩টি, বরিশাল রেঞ্জে ৭টি, সিলেট রেঞ্জে ১৬টি, রংপুর রেঞ্জে ৮টি, ময়মনসিংহ রেঞ্জে ৬টি ও রেলওয়ে রেঞ্জে ৩টি মামলা দায়ের করা হয়।

২০০৫ সাল থেকে চলতি বছরের (২০২০) ১৬ আগস্ট পর্যন্ত- এসব মামলার মধ্যে ১৪৩টি মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেয়া হয়। বাকি ১৬টি মামলায় ঘটনার সত্যতা থাকলেও আসামি শনাক্ত করতে না পারায় চূড়ান্ত প্রতিবেদন (ফাইনাল রিপোর্ট) দেয়া হয়। মামলাগুলোতে ১৩০ জন এজাহারনামীয় আসামী ছিল। বিভিন্ন অভিযানের মাধ্যমে মোট ৯৬১ জনকে গ্রেফতার করা হয়। অভিযোগপত্র দেয়া হয়েছে ১ হাজার ৭২ জনের বিরুদ্ধে। আসামীদের মধ্যে ৩২২ জনের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা হয়েছে। এর মধ্যে ১৫ জনের ফাঁসির দণ্ড দেয়া হয়েছে। খালাস পেয়েছে ৩৫৮ জন এবং জামিনে রয়েছে ১৩৩ জন আসামি।

পুলিশ সদর দফতর থেকে আরও জানানো হয়, সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় ডিএমপিতে ১৮টি মামলা দায়ের হয়। এর মধ্যে ৫টি মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে এবং ৬টি মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন (ফাইনাল রিপোর্ট) দেওয়া হয়েছে। ৭টি মামলা এখনও ঢাকা জুডিশিয়াল কোর্টে চলমান রয়েছে।

এ বিষয়ে পুলিশ সদর দফতরের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) মো. সোহেল রানা বলেন, পুলিশে পক্ষ থেকে এসব মামলার তদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করে আদালতে প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে। এসব মামলা আদালতে এখনও বিচারাধীন রয়েছে।

পাবলিক প্রসিকিউটার অ্যাডভোকেট আবদুল্লাহ আবু বলেন, কিছু মামলা এখনও পেন্ডিংয়ের পর্যায়ে যেগুলো সাক্ষীর পর্যায়ে রয়েছে। এছাড়াও পুরাতন মামলার সাক্ষী হয়ে গেছে।

জেএমবির বর্তমান অবস্থা নিয়ে পুলিশের কাউন্টার টোরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট প্রধান মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশ সংগঠিত বড় কোনো হামলা করার মতো সাংগঠনিক শক্তি বা ক্যাপাসিটি আপাতত জেএমবি বা অন্য কোনো জঙ্গি সংগঠনের নেই। ২০০৫ সালের দেশব্যাপী সিরিজ বোমা হামলা এবং ২০১৬ জেএমবির যে সক্ষমতা ছিল, বর্তমানে দেশে সংগঠিত কোনো হামলা করার সাংগঠনিক সক্ষমতা কোনো সংগঠনেরই নেই। ’

ভয়েস টিভি/নিজস্ব প্রতিবেদক/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/10260
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ