Printed on Thu Oct 21 2021 11:35:48 AM

সেই শিক্ষক সাময়িক বহিষ্কার, দুঃখ প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক
শিক্ষাঙ্গনজাতীয়
বন্ধ
বন্ধ
রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেয়ার ঘটনায় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। সেইসঙ্গে পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে। স্থগিত করা হয়েছে সব পরীক্ষাও। তবে তদন্ত সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানা গেছে।

৩০ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৬তম সিন্ডিকেট সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র অধ্যায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান ও তদন্ত কমিটির প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেল এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্রেজারার আব্দুল লতিফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ভিসি আব্দুল লতিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর আবু মো. দেলোয়ার হোসেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্নসচিব-৩ সৈয়দা নওয়ারা জাহান ও রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. সোহরাব আলী। চুল কেটে দেয়ার ঘটনায় সিন্ডিকেট সভায় উপস্থিত সদস্যরা দুঃখ প্রকাশ করেছেন বলে রেজিস্ট্রারের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটির পাওয়া প্রতিবেদন সাপেক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন, সংবিধি, প্রবিধি, নীতিমালা এবং সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা-২০১৮ অনুযায়ী সাময়িক বহিষ্কৃত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের বিরুদ্ধে পরবর্তী চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এর আগে, গত ২৬ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের ১৪ জন শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেয়ার ঘটনা ঘটে। এরপর ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র নাজমুল হোসেন তুহিন (২৫) ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে সিরাজগঞ্জের খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শিক্ষক ফারহানা বাতেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান লায়লা ফেরদৌস হিমেলকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এদিকে অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন ২৮ সেপ্টেম্বর রাতে দায়িত্বে থাকা তিন পদ থেকে সরে দাঁড়ান।

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে কেন আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে না জানতে চেয়ে রুলও জারি করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের এ ধরনের আচরণ রোধে কেন আচরণবিধি তৈরি করা হবে না, রুলে তাও জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

এ ছাড়া শাস্তি পাওয়া ওই ১৪ শিক্ষার্থীর প্রত্যেককে কেন ২০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কী পদক্ষেপ নিয়েছে তা আগামী ৩০ দিনের মধ্যে লিখিত আকারে তা জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

ভয়েস টিভি/এসএফ
যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/54653
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2021 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ