Printed on Sat May 28 2022 8:02:38 PM

হিজাবের পক্ষে বিক্ষোভ, কর্ণাটকের ৫৮ ছাত্রী বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিশ্ব
হিজাবের পক্ষে
হিজাবের পক্ষে

ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের শিবমোগা জেলার একটি স্কুল কর্তৃপক্ষ তাদের ৫৮ জন ছাত্রীকে বহিষ্কার করেছে। ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ১৮ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার ওই ছাত্রীরা হিজাব নিষিদ্ধ করার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করায় তাদের বহিষ্কার করা হয়।


শুধু তাই নয়, ওই ছাত্রীদের বিরুদ্ধে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্কুলে প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। বহিষ্কার হওয়া ৫৮ জন ছাড়া অন্য বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা ভাঙার অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।


স্কুল কর্তৃপক্ষ বলেছে, কয়েক দিন ধরেই পুলিশ ও স্কুল কর্মকর্তারা ছাত্রীদের হিজাব না পরার নিয়মের কথা বলছিলেন, কিন্তু তারা কথা শুনছিল না।


বহিষ্কার হওয়ার পরেও নিজেদের দাবিতে এখনো অনড় রয়েছে ছাত্রীরা। তারা বলেছে, ‘হিজাব আমাদের অধিকার। প্রয়োজনে মৃত্যুবরণ করব, কিন্তু হিজাব ইস্যুতে আপস করব না।’


আরও পড়ুন: ‘ভারতের সংবিধানে হিজাব অবৈধ নয়’


এদিকে তুমাকুরুর একটি কলেজের একজন খণ্ডকালীন শিক্ষক চাকরি থেকে অব্যাহতিপত্র দিয়েছেন। তিন বছর ধরে তিনি ওই কলেজে ইংরেজি পড়াতেন। সম্প্রতি কলেজের অধ্যক্ষ তাঁকে ডেকে হিজাব পরে ক্লাস না নেওয়ার নির্দেশ দিলে তিনি প্রতিবাদে চাকরি ছেড়ে দেন।


এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত তিন বছর ধরে কলেজটিতে ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক হিসেবে শিক্ষকতা করছিলেন চাঁদনী। কিন্তু কখনোই তার হিজাব পরা নিয়ে আপত্তি জানায়নি কলেজ কর্তৃপক্ষ। এবারই প্রথম তকে হিজাব খুলতে বলা হয়েছে।


চাঁদনী চিঠিতে উল্লেখ করেন, আমি গত তিন বছর ধরে জৈন পিইউ কলেজে শিক্ষকতা করছি। হিজাব পরার কারণে এখন পর্যন্ত কোনো সমস্যার সম্মুখীন হইনি আমি। কিন্তু গতকাল অধ্যক্ষ আমাকে বলেন যে, আমি পড়াতে গিয়ে হিজাব বা কোনো ধর্মীয় প্রতীক পরতে পারবো না। আমি গত তিন বছর অন্যদের হিজাব পরা শিখিয়েছি। নতুন এই সিদ্ধান্ত আমার আত্মসম্মানে আঘাত হেনেছে। এ কারণেই আমি চাকরি ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।


এদিকে, এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কলেজের অধ্যক্ষ কে টি মঞ্জুনাথ বলেন, ওই নারী প্রভাষককে কখনো হিজাব খুলতে বলা হয়নি।


প্রায় এক মাসেরও বেশি সময় ধরে কর্ণাটকের বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে একদল মুসলিম শিক্ষার্থী হিজাব পরে ক্লাস করার অনুমতির দাবিতে আন্দোলন করছে। অন্যদিকে হিন্দু শিক্ষার্থীরা গেরুয়া ওড়না পরে হিজাববিরোধী আন্দোলন শুরু করেছে।


গত মাসে উদুপি জেলার সরকারি বালিকা পিইউ কলেজে ছয়জন মুসলিম ছাত্রীকে হিজাব পরার কারণে শ্রেণিকক্ষের বাইরে বসতে বাধ্য করেন শিক্ষকেরা। এর পরই আন্দোলনের সূত্রপাত হয়। তখন কলেজ প্রশাসন বলেছিল, হিজাব ইউনিফর্মের অংশ নয়। যারা হিজাব পরেছে তারা কলেজের নিয়ম ভঙ্গ করেছে।


এর পরই হিজাব আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে রাজ্যের মান্দিয়া ও শিবমোগা এলাকায়। যদিও ভারতীয় আইনে হিজাব পরে ক্লাসে আসতে শিক্ষার্থীদের বাধা নেই।


ভয়েসটিভি/আরকে

যোগাযোগঃ
ভয়েস টিভি ৮০/৩, ভিআইপি রোড, খান টাওয়ার, কাকরাইল,
ঢাকা-১০০০, বাংলাদেশ
ফোনঃ +৮৮ ০২ ৯৩৩৮৫৩০
https://bn.voicetv.tv/news/67294
© স্বত্ব ভয়েস টিভি 2022 — ভয়েস টিভি
শাপলা মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান
সর্বশেষ সংবাদ